অঘটন ঘটিয়ে রেকর্ডের পাতায় পোল্যান্ডের গোলরক্ষক

ইউরো কাপের সোমবারের দিনটি যেন রেকর্ডময় একদিন। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে দিনের প্রথম ম্যাচে প্রায় ৫২ গজ দূর থেকে গোল করে ইউরোর রেকর্ড গড়েছেন চেক রি পাবলিকের ফরোয়ার্ড প্যাটট্রিক শিক। আর স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে পরের ম্যাচে রেকর্ডবুকে নাম তুলেছেন পোল্যান্ডের গোলরক্ষক শেজনি।

নিজেদের ঘরের মাঠে র‍্যাংকিংয়ের ১৫ ধাপ পেছনের দল স্লোভাকিয়ার কাছে ১-২ ব্যবধানে হেরে গেছে পোল্যান্ড। এ ম্যাচে হারের বড় দায় নিতে হবে গোলরক্ষক শেজনি ও ১০ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় ক্রাইচোভিয়াককে। কেননা এ দুজনের কারণেই হজম করতে হয়েছে দুইটি গোল।

অবশ্য ম্যাচ হারলেও, রেকর্ডবুকে নাম উঠে গেছে শেজনি ও ক্রাইচোভিয়াকের। ম্যাচের ১৮ মিনিটের সময় প্রথম গোলটি করেছিল স্লোভাকিয়া। দুর্দান্ত এক টার্নে পোল্যান্ডের দুই ডিফেন্ডারকে হতভম্ব করেন রবার্ট ম্যাক। পরে গোলের উদ্দেশে নেন নিচু শট। বল গোলবারে লেগে ফিরে আসার পথে শেজনি গায়ে লেগে জড়িয়ে যায় জালে।

যার ফলে আত্মঘাতী গোলের সুবাদে লিড পায় স্লোভাকিয়ানরা। আর ইউরোর ইতিহাসের প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে আত্মঘাতী গোল করে রেকর্ডের পাতায় নিজের নামটি সবার ওপরে তুলে ফেলেন পোল্যান্ডের গোলরক্ষক শেজনি।

অঘটন ঘটিয়ে রেকর্ডের পাতায় পোল্যান্ডের গোলরক্ষক

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটে তার এই ভুলের মাশুল দেন ক্যারল লিনেত্তি। বামপাশ থেকে স্লোভাকিয়ার রক্ষণ উন্মুক্ত করে নেন মাসিয়েজ রাইবাস। তার নিচু করে বাড়িয়ে দেয়া বল লেওয়ানডস্কির আয়ত্তের বাইরে ছিল। তবে গোলের কাছেই ছিলেন লিনেত্তি। স্লাইড করে বলে পা ছুঁয়ে দলকে সমতায় ফেরান এ মিডফিল্ডার।

কিন্তু ম্যাচের ৬২ মিনিটের সময় বিপদ বাড়ান ১০ নম্বর জার্সিধারী ক্রাইচোভিয়াক। প্রথমার্ধে ২৪ মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেছিলেন তিনি। পরে ৬২ মিনিটে প্রতিপক্ষের মিডফিল্ডারকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের মাধ্যমে লাল কার্ড দেখেন তিনি।

যে কারণে বাকি অংশ ১০ জন নিয়ে খেলতে হয় পোল্যান্ডকে এবং সুযোগ কাজে লাগিয়ে আরেক গোল করে ম্যাচ জিতে নেয় স্লোভাকিয়া। ম্যাচ জেতার মাধ্যমে কোনো রেকর্ড হয়নি স্লোভাকিয়ার। তবে আত্মঘাতী গোল ও লাল কার্ডের মাধ্যমে ৪৫ বছর আগের স্মৃতি ফিরিয়েছে পোল্যান্ড।

ইউরোর ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয় দল হিসেবে একই ম্যাচে আত্মঘাতী গোল ও লাল কার্ডের দেখা পেলো পোল্যান্ড। প্রথম দল হিসেবে ১৯৭৬ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচে এমন বিব্রতকর রেকর্ড গড়েছিল চেকোস্লোভাকিয়া।

এদিকে পোল্যান্ডের মাত্র তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে কোনো মেজর টুর্নামেন্টে (ইউরো অথবা বিশ্বকাপ) লাল কার্ড দেখলেন ক্রাইচোভিয়াক। তার ২০০৬ সালের বিশ্বকাপে জার্মানির বিপক্ষে রেডিস্লো সবোলেস্কি এবং ২০১২ সালের ইউরোতে গ্রিসের বিপক্ষে লাল কার্ড দেখেছিলেন শেজনি।

পূর্ববর্তী খবরঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত ১৮৭ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
পরবর্তী খবরউগ্র ইহুদিবাদীদের পতাকা মিছিল আজ; মসজিদুল আকসায় সমবেত হওয়ার আহ্বান

Leave a Reply