ইউক্রেনকে যুদ্ধক্ষেত্রের গোয়েন্দা প্রযুক্তি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনকে যুদ্ধক্ষেত্রের গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের জন্য প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন সরকার। ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার সঙ্গে যখন মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর প্রচণ্ড সামরিক উত্তেজনা চলছে তখন নিউইয়র্ক টাইমস এই খবর দিয়েছে।

মার্কিন সরকার এবং ন্যাটো বাহিনীর বর্তমান অবস্থানের প্রেক্ষাপটে রাশিয়া মনে করছে-ইউক্রেনে ন্যাটো সেনা সমাবেশ করা হয়েছে মূলত রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ করার জন্য।

যুদ্ধক্ষেত্রে কি ধরনের গোয়েন্দা প্রযুক্তি ইউক্রেনকে সরবরাহ করা হবে তা নিয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর, পররাষ্ট্র দপ্তর এবং হোয়াইট হাউস একটি তালিকা তৈরি করেছে। নিউ ইয়র্ক টাইমস জানাচ্ছে- আফগান সরকারের জন্য ওয়াশিংটন সর্বশেষ পর্যায়ে যে সমস্ত হেলিকপ্টার ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা করেছিল সেগুলো এখন ইউক্রেনকে দেয়া হবে।

ইউক্রেনকে যুদ্ধক্ষেত্রের গোয়েন্দা প্রযুক্তি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র
রাশিয়া বলেছে ন্যাটো বাহিনী আগ্রাসন চালালে কঠোর জবাব পাবে

এছাড়া, বাইডেন প্রশাসন ইউক্রেনে বাড়তি সাইবার যুদ্ধ-বিশেষজ্ঞ পাঠানোর বিষয়টি বিবেচনা করছে বলে নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে। পত্রিকাটি আরো জানিয়েছে যে, ইউক্রেনে সম্ভাব্য সামরিক হামলা মোকাবেলায় জন্য এরইমধ্যে আমেরিকা ও ব্রিটেন কয়েকজন সামরিক বিশেষজ্ঞ পাঠিয়েছে। তারা ইউক্রেনে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার ক্ষেত্রে কাজ করবেন।

পেন্টাগনের পক্ষ থেকে ইউক্রেনকে যদি এই ধরনের গোয়েন্দা প্রযুক্তি সরবরাহ করা হয় তাহলে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর তৎপরতা সম্পর্কে ইউক্রেন আগেই তথ্য পেয়ে যাবে এবং আগেভাগেই তারা হামলা মোকাবেলার জন্য প্রস্তুতি নিতে পারবে।#

পূর্ববর্তী খবরভোজ্য তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সরিষার চাষ বেড়েছে
পরবর্তী খবরঠাকুরগাঁওয়ে ইউপি নির্বাচনের ফলাফলকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে নিহত ১

Leave a Reply