ইরানের পানিসীমা থেকে ইরাকি জাহাজ অপহৃত হওয়ার দাবি প্রত্যাখ্যান

কাতারের আর-রুয়ায়িস বন্দরে

ইরানের পানিসীমা থেকে ইরাকের একটি জাহাজ অপহৃত হয়েছে বলে কোনো কোনো আরব নিউজ চ্যানেলে যে খবর প্রকাশত হয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান।

ইরানের বন্দর ও জাহাজ চলাচল সংস্থার মহাপরিচালক হোসেইন আব্বাস-নেজাদ প্রকাশিত খবরকে ‘অসত্য’ উল্লেখ করে বলেছেন, কোনো জাহাজ অপহরণের ঘটনা ঘটেনি বরং একটি জাহাজকে চার দেশের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সম্প্রতি সৌদি আরবের পানিসীমায় অবস্থিত একটি অজ্ঞাত বিপদগ্রস্ত জাহাজ থেকে জরুরি উদ্ধার বার্তা পাঠানো হলে ইরানের বুশেহর বন্দর থেকে ‘নাজি-৮’ নামক উদ্ধারকারী জাহাজ অকুস্থলে পাঠায় তেহরান।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে এবং বিশ্ব জাহাজ চলাচল বিষয়ক সংস্থা আইএমও’র সদস্যদেশ হিসেবে ইরান তার দায়িত্ব পালন করে। আব্বাস-নেজাদ বলেন, ইরান, সৌদি আরব, বাহরাইন ও কাতারের উদ্ধারকারী দলগুলো কয়েকদিন ধরে সাগর ও আকাশপথে অনুসন্ধান চালিয়ে শেষ পর্যন্ত বিপদগ্রস্ত জাহাজটির সন্ধান পায়।

 

ইরানের পানিসীমা থেকে ইরাকি জাহাজ অপহৃত হওয়ার দাবি প্রত্যাখ্যান
আব্বাস-নেজাদ

তিনি বলেন, ততক্ষণে জাহাজটি ভাসতে ভাসতে কাতারের উপকূলে চলে গিয়েছিল এবং সেটিকে উদ্ধার করে কাতারের আর-রুয়ায়িস বন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। এই অভিযানে ইরানের দু’টি উদ্ধাকারী জাহাজ অংশগ্রহণ করে জানিয়ে ইরানের এই মহাপরিচালক বলেন, সমুদ্রে বিপদগ্রস্ত জাহাজ উদ্ধারে ইরান খুব ভালোভাবে নিজের সক্ষমতা প্রদর্শন করেছে।

কয়েকটি আরব গণমাধ্যম দাবি করেছিল, ইরানের পানিসীমা থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা একটি ইরাকি জাহাজ অপহরণ করেছে। ইরানের বন্দর ও জাহাজ চলাচল সংস্থা তাৎক্ষণিকভাবে ওই দাবি প্রত্যাখ্যান করে।#

পূর্ববর্তী খবরইয়েমেনে সৌদি যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবের নেপথ্য কারণ
পরবর্তী খবরস্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করেই ২ এপ্রিল মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা

Leave a Reply