ঈশ্বরদীতে গাড়িসহ ৪ ডাকাত সদস্য আটক,পলাতক ১

ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের আড়পাড়া (বটতলা) এলাকায় সোমবার রাত ২ টায় একটি প্রাইভেট কারসহ তাদের আটক করা হয়েছে।

ঘটনা সূত্রে জানাযায়,সোমবার গভীর রাতে (২ ঘটিকা) রাজাপুর বাজার হতে একটি কালো প্রাইভেট কার মুলাডুলি ইউনিয়নের ৮-নং ওয়ার্ডের আড়পাড়া বটতলা এলাকায় এসে থামে। এসময় চক্রের এক সদস্য গাড়ী থেকে নেমে চারপাশটা দেখতে থাকে। তাদের চলাচল সন্দেহ মূলক হওয়ায় নৈশ প্রহরী স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ নয়ন মোল্লা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাদের দিকে এগিয়ে যায়। তাকে (নয়ন) আসতে দেখে ডাকাতরা তাদের গাড়ী নিয়ে চলে যেতে থাকলে নয়ন গাড়ী রোধ করতে সামনে দাঁড়ান। এসময় তারা আর আর পি ফিড মিলের গাড়ী বলে নয়নকে নিজেদের পরিচয় দিলে নয়ন তাদের যেতে বলেন।

এসময় ডাকাত সদস্যদের দেয়া পরিচয় অনুযায়ী তারা আর আর পি ফিডমিলে না ঢুকে দ্রুত পালিয়ে যেতে থাকলে নয়ন আবারো তাদের গাড়ীর গতিরোধ করে সামনে দাঁড়ায় এবং চিৎকার চেচামেচি করলে প্রতিবেশীসহ বাকী নৈশ্য প্রহরীরা এগিয়ে আসেন এবং তাদের প্রশ্ন করতে থাকেন। এসময় তাদের কথার সাথে কাজের মিল না পাওয়ায় উপস্থিত সবাই ডাকাত দল বলতেই তাদের একজন দৌঁড়ে পালিয়ে যান। এমতাবস্তায় উপস্থিত সবাই চক্রের বাকী ৪ সদস্যকে আটক করে তাদের উত্তম মাধ্যম দিতে থাকেন।

ঘটনার বিবরনে মোঃ রিপন হোসেন জানান,সন্দেহের পর তাদের গাড়ী তল্লাশী করে একসেট অটো চাবি (যাহা যে কোন তালা খোলা যায়) এবং তালা কাটার একটি যন্ত্র পাওয়া যায়।

তিনি আরও বলেন,তাদের কাছে এগুলোর কারন জানতে চেয়ে কোন সঠিক উত্তর না পাওয়ায় ডাকাতদের ব্যবহৃত একটি কালো প্রাইভেট কার ( কুষ্টিয়া গ-১১-০০০২) বিক্ষুদ্ধ জনতা ভেঙ্গে ফেলেন।

খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানার তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ হাদিউল ইসলাম এবং এস আই মোঃ মুকুলসহ সঙ্গীয় ফোর্স দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত অবস্থায় ডাকাত সদস্যদের ৪ জনকে উদ্ধার করেন।

জানতে চাইলে তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ হাদিউল ইসলাম এবং এস আই মোঃ মুকুল বলেন,ডাকাত চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে তবে তাদের নাম পরিচয় এখনো সুস্পষ্ট করে জানা যায়নি। এসময় তাদের ব্যবহৃত প্রাইভেট কার,ব্যবহৃত তালা কাটার এবং অটো চাবী উদ্ধার করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরঅবিশ্বাস্য হলেও সত্যি; বিমানের চাকায় লুকিয়ে আফ্রিকা থেকে নেদারল্যান্ডস
পরবর্তী খবরকরোনা শনাক্ত ১৪৮২৮, মৃত্যু ১৫

Leave a Reply