27 C
Dhaka
Sunday, December 4, 2022

ঈশ্বরদীতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঈশ্বরদীর চিন্হিত মাদক সম্রাট খ্যাত ব্যবসায়ী মোঃ আব্দুর রহিম (৩৬)কে ইয়াবাসহ আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা পুলিশের একটি চৌকস দল।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) দুপুর তিন ঘটিকার দিকে দাশুড়িয়া মিলগেট এলাকা থেকে একটি লাল পালসার মটরসাইকেল ও ৩০০ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ তাকে আটক করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত মোঃ আব্দুর রহিম ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের ৯-নং ওয়ার্ডের ঢুলটি এলাকার মো. আব্দুর রহমানের ছেলে।

পাবনা জেলা পুলিশের একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে,পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান,বিপিএম,পিপিএম মহোদয়ের নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা শাখার অভিযানে ঈশ্বরদী থানাস্হ দাশুরিয়া মিলসগেট সাব জোনের সামনে হতে আসামী মোঃ আব্দুর রহিম (৩৬) পিতা-আব্দুর রহমান সাং-ঢুলটিবাজার থানা-ঈশ্বরদী জেলা- পাবনাকে অদ্য ২৮-০৪-২০২২ ইং তারিখ ১৪-৫০ ঘটিকায় ৩০০(তিনশত)পিচ ইয়াবা ও একটি লাল পালসার মটরসাইকেলসহ আটক করে।

ইতিপূর্বে আসামীর বিরুদ্ধে ০২ টি মাদক মামলা বিচারাধীন আছে। উপরোক্ত ঘটনায় ঈশ্বরদী থানায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য,গ্রেফতারকৃত মোঃ আব্দুর রহিম এলাকার চিন্হিত মাদক কারবারী হিসেবে দীর্ঘদিন যাবৎ তার কারবার পরিচালনা করে আসছে বলে একাধিক সূত্রে জানাগেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিকসূত্র জানান, ঈশ্বরদীর মাদক সম্রাটদের মধ্যে রহিম অন্যতম। তার আমদানিকৃত ইয়াবা,গাঁজা,চুয়ানি ও মদে যুব সমাজ আজ ধ্বংসের দারপ্রান্তে।

তিনি আরও বলেন,রহিম স্বস্ত্রীক একটি সবুজ সিএনজি নিয়ে রাত বিরাত ঈশ্বরদীর আনাচে কানাচে তার এই মাদক সাপ্লায় করে বেরান। তার বাড়ির আঙ্গিনায় সারা রাত চলে মাদক সেবিদের আনাগোনা।

নাম প্রকাশে তার এক প্রতিবেশী বলেন,শুধুমাত্র নামেই রহিম সিএনজি চালক কিন্তু তাকে কোন দিন আমরা পেশাগত সিএনজি চালাতে দেখি নাই। শুধু তাইনয় তার সিএনজির একমাত্র পেসেন্জার তার বউ। তাকে নিয়েই এলাকার যুব সমাজ নষ্টে মত্ত হয়ে উঠেছে এই মাদক সম্রাট রহিম।

তিনি আরও বলেন,অনেক সিএনজি চালক আছে যারা সিএনজি চালিয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে ব্যর্থ হলেও রহিম একমাত্র আলাদিনের চ্যারাগ প্রাপ্ত সিএনজি চালক যে কিনা ফাঁকা সিএনজি নিয়ে ঘুরেই জমি কিনে দুইতলা একটি ফ্ল্যাট বাড়ী করেছে। অবসরে ঘুরে বেড়ান পালসার মোটর সাইকেল নিয়ে। জীবন যাপন করেন সমাজের দশজন বিত্তবানের চেয়েও ভালোভাবে।

এলাকাবাসী জোর দাবি করে জানান,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে আমাদের একটি আবেদন,এই মাদক সম্রাট রহিমের যেন কঠিন থেকে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করেন তারা এবং তার সাথে নেপথ্যের নায়কদেরও আটক করে আইনের আওতায় এনে সমাজ কে মাদক মুক্ত করেন।

উল্লেখ্য,পূর্বেও উক্ত আসামী (রহিমের) বিরুদ্ধে ০২ টি মাদক মামলা বিচারাধীন আছে বলে জানা গেছে। তবুও যেন থেমে নেই সমাজের যুবকদের ধ্বংসকারী মাদক সম্রাট আসামী রহিম!

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

লেখক থেকে আরো