27 C
Dhaka
Wednesday, November 30, 2022

কৃষকের ছেলে রাশেদের মেডিকেল জয়

নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হয়েও মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা 2020-2021 এ অংশগ্রহণ করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছে(মেধাক্রম ৮৯৩) রাশেদুল ইসলাম।অদম্য মেধাবী রাশেদুলের জীবন কাহিনী আর আট দশ জন শিক্ষার্থীর মতো নয়।তার বাবা গ্রামের একজন দরিদ্র কৃষক।অভাব অনটনের সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তিনি।ছেলে মেয়ের পড়ালেখার খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হতো,মাঝেমধ্যে অন্যের দারস্থও হতে হয়েছে।বাবার ইচ্ছা শত কষ্ট হলেও ছেলেকে প্রতিষ্ঠিত করে তুলবে।সেজন্য রাশেদের একটাই লক্ষ্য ছিলো দারিদ্র্যতাকে জয় করে কৃষক বাবার মুখে হাসি ফোটানো।

রাশেদুল এ এন্ড জে কলেজ ঝিনাইদহের প্রাক্তন ছাত্র।রাশেদ জানায় তার সফলতার পেছনে অনেকের অবদান‌ই স্মরণযোগ্য।তার পিতা মাতা তাকে সবসময় শক্তি ও সাহস যুগিয়েছে,দিয়েছে এগিয়ে যাবার অনুপ্রেরণা। তারা ছিল বলেই এ পর্যন্ত আসতে পেরেছে। সম্পূর্ণ পরিবার সর্বদা তাকে সাপোর্ট করেছে। এছাড়াও ওহিদুজ্জামান ওহিদ, আব্দুর রহমান নান্নু, নাজমুল হোসেন, মোঃ আসাদুজ্জামান স্যার সবসময় তার পাশে ছিল। তাদের সঠিক দিক নির্দেশনা এবং আপনজনদের দোয়া ও মহান আল্লাহর অশেষ রহমত ছিল বলেই সে এ পর্যন্ত আসতে পেরেছে।

রাশেদ বলেন”মেডিকেল একটা স্বপ্নের জায়গা।অন্যরকম একটা অনুভূতি কাজ করে যা বলে বোঝানো সম্ভব না। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে এতদূর আসা এক ধরনের চ্যালেঞ্জ।জানিনা এই চ্যালেঞ্জের মুখে কতটুকু টিকে থাকতে পারব, জানিনা পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি আমার বাবা আমাকে কতক্ষণ সাপোর্ট দিতে পারবে। তবে ব্যর্থতার কাছে সহজে হার মানবো না। চ্যালেঞ্জ কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েই নামব পরবর্তী জীবন সংগ্রামে। আগত সকল প্রতিকূলতাকে টপকে আমি যেন মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারি সে দোয়াই করবেন আমার জন্য।”

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

লেখক থেকে আরো