চট্টগ্রাম মহানগরীতে চারলেনের সড়ক করার উদ্যোগ।

প্রতিকী ছবি:- চার লেনের সড়ক
চট্টগ্রাম মহানগরীতে চারলেনের সড়ক করার উদ্যোগ।

চট্টগ্রাম মহানগরীতে প্রায় আটশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে চার লেনের নতুন একটি রাস্তা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। নগরীর জাকির হোসেন রোডকে ফৌজদারহাট-বায়েজিদ লিংক রোডের সাথে যুক্ত করতে এই রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। জাকির হোসেন রোডের খুলশীর মুরগির ফার্ম থেকে লিংক রোডের এশিয়ান উইম্যান ইউনিভার্সিটির পাশে সড়কটির সংযোগ ঘটাবে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে প্রকল্পটিকে একনেকে পাঠানো হচ্ছে।

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, চট্টগ্রাম মহানগরীর জিইসি মোড়, ষোলশহর দুই নম্বর গেট, বায়েজিদ বোস্তামী কিংবা খুলশীসহ সন্নিহিত এলাকায় হাজার হাজার গাড়ি চলাচল করে। এসব গাড়ির একটি বড় অংশেরই শহরের ভিতরে প্রবেশের প্রয়োজন না থাকলেও প্রয়োজনীয় সড়ক না থাকায় গাড়িগুলো শহরের ভিতরে ভিড় করে। ফৌজদারহাট থেকে বায়েজিদ বোস্তামী সড়ক পর্যন্ত লিংক রোডটি অনানুষ্ঠানিকভাবে চালু করার পর নগরীর যান চলাচলের ক্ষেত্রে রীতিমতো বিপ্লব সৃষ্টি হয়েছে। মাত্র বিশ মিনিটে পৌঁছা যাচ্ছে ফৌজদারহাট থেকে দেওয়ানহাট কিংবা বটতলী রেলওয়ে স্টেশনে। একইভাবে লালখান বাজার থেকে ফ্লাইওভার এবং লিংক রোড ব্যবহার করে আউটার রিং রোড ধরে বিমানবন্দরে যাতায়াত করা যাচ্ছে চল্লিশ মিনিটে। যান চলাচলের এই ধারায় আরো গতিশীলতা তৈরির সুযোগ রয়েছে। বিশেষ করে শহরের খুলশী, পাহাড়তলীর একাংশ, আকবর শাহ এবং আমবাগানসহ বিস্তৃত এলাকার কয়েক লাখ মানুষকে বায়েজিদ লিংক রোড ধরতে জিইসি ঘুরে যেতে হচ্ছে। আসার ক্ষেত্রে একইভাবে ষোলশহর দুই নম্বর গেট এবং জিইসি ঘুরতে হচ্ছে। এই অবস্থার অবসান ঘটিয়ে নতুন গতি আনতে জাকির হোসেন রোডের সাথে বায়েজিদ লিংক রোডকে যুক্ত করে দেয়া হচ্ছে। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের শীর্ষ একজন কর্মকর্তা জানান, জাকির হোসেন রোডের মুরগির ফার্ম থেকে বায়েজিদ লিংক রোডের এশিয়ান উইম্যান ইউনিভার্সিটির পাশ পর্যন্ত ২ দশমিক ৮৬ কিলোমিটার দীর্ঘ চার লেনের একটি রাস্তা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৮৪ কোটি টাকা। ইতোমধ্যে ডিপিপি তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া হয়েছে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে প্রকল্পটি একনেকে তোলা হবে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে।
বিষষটি নিয়ে সিডিএর চিফ ইঞ্জিনিয়ার কাজী হাসান বিন শামসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জাকির হোসেন রোড থেকে সহজে বায়েজিদ লিংক রোডে যাতায়াতের জন্য নর্থ সাউথ-ওয়ান নামের চার লেনের একটি সড়ক নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই সড়কটি নির্মিত হলে বহু গাড়িকেই আর জিইসি বা ষোলশহর দুই নম্বর গেট ব্যবহার করতে হবে না। যা নগরীর যান চলাচলে ইতিবাচক একটি গতিশীলতা তৈরি করবে। তিনি বলেন, ফৌজদারহাট বায়েজিদ লিংক রোড চালু হওয়ায় যান চলাচলে যেই গতিশীলতার সৃষ্টি হয়েছে প্রস্তাবিত নর্থ সাউথ ওয়ান সড়কটি তাতে নতুন মাত্রা যোগ করবে।
সিডিএর চিফ ইঞ্জিনিয়ার বলেন, একনেকের অনুমোদনের পরই আমরা প্রকল্পটির জন্য কনসালটেন্ট নিয়োগ এবং টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবো। এই রাস্তাটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে আখ্যায়িত করে কাজী হাসান বিন শামস বলেন, চার লেনের রাস্তাটির নির্মাণ কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪০ কোটি টাকা। বাকি টাকা ভূমি অধিগ্রহণসহ আনুষাঙ্গিক কাজে খরচ হবে।
পূর্ববর্তী খবরসুস্থ জাতি, সুন্দর ভবিষ্যৎ।
পরবর্তী খবরআধুনিক ভাসানচর ভাসমান রোহিঙ্গাদের বরণ করতে প্রস্তুত।

Leave a Reply