চবিতে পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণার ৪ ঘন্টা পর নতুন সিদ্ধান্ত, বিপাকে শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) চলমান সব ধরনের পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা দেওয়ার ৪ ঘণ্টা পর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার (৩০ জুন) পর্যন্ত চলবে সব ধরনের পরীক্ষা। শনিবার (২৬ জুন) রাত ১১টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান।

এ দিকে প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা শুনে অনেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

সূত্রে জানা যায়, সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের কারণে শনিবার (২৬ জুন) অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরনের পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পরীক্ষায় অংশ নিতে চট্টগ্রামে আসা শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় ঢাকায় পৌঁছে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করা হয়। তবে সরকার লকডাউনের সময়সীমা পরিবর্তন করায় মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে।

এ দিকে মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করায় সমালোচনায় সরব হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। অনেকেই হাস্যরসে মেতে উঠেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে সেখানে কমেন্ট বক্সে সায়মন তারেক নামের একজন শিক্ষার্থী লিখেন, `এটা কি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সিদ্ধান্ত?

আপনারা স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় না চালিয়ে প্রাইমারি স্কুল চালান কাজে দিবে।’

শরীফুল ইসলাম নামের আরেক শিক্ষার্থী লিখেন, `কি এক সার্কাস চলিতেছে। লকডাউন না হলে চেঞ্জ হইলো আপনারা আপনাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে দিলেন যাদের আগামীকাল এক্সাম এখন বাড়িতে চলে আসছে তাদের কি হবে? ‘ এসকে শোয়াইবুর রহমাস নামের আরেক শিক্ষার্থী লিখেন, `শিক্ষার্থীদের সাথে যেভাবে পারতেছে ওভাবে খেলতেছে। শিক্ষার্থীদের জন্য এগুলো কোনো টর্চার থেকে কম না।’

অন্যদিকে পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা শুনে অনেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। বাংলা বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মাসুম বিল্লাহ আজকের পত্রিকাকে বলেন, `পরীক্ষা হবে না শুনেই আমি ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছি। এখন (রাত ১২ টা) আমি নারায়ণগঞ্জ রাস্তায়।’

একই শিক্ষাবর্ষের গোলাম রাব্বানী বলেন, `এই কেমন সিদ্ধান্ত? আমরা যারা বাড়ির পথে আছি, তাঁরা কীভাবে পরীক্ষায় অংশ নিবো? ‘

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান জানান, সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের সময় পরিবর্তন করায় আমরা আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছি। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার (৩০ জুন) পর্যন্ত সব ধরনের পরীক্ষা চলবে। বৃহস্পতিবার (০১ জুলাই) থেকে পরীক্ষা স্থগিত থাকবে। এ ছাড়া আগামীকাল ঢাকার উদ্দেশ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস ছাড়বে না।

পূর্ববর্তী খবরপাবিপ্রবির সকল চলমান ও অনুষ্ঠিতব্য সশরীরে পরীক্ষা স্থগিত।
পরবর্তী খবর‘আমাদের লক্ষ্য ২০ থেকে ৩০ হাজার মেগাওয়াট পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদন’

Leave a Reply