তালাক কেন সমাধান?

তালাক কেন সমাধান

দুইজন বিপরীত লিঙ্গের ব্যক্তি পাশাপাশি অবস্থান করলে তাদের মধ্যে সেতু বন্ধন তৈরি হয় প্রাকৃতিক ভাবে। এই বন্ধন আয়নিক নয়। সেখানে দুইটি পরমানু দেওয়া নেওয়ার মধ্য দিয়ে বন্ধন তৈরি করে। এই বন্ধন হাইড্রোজেন বন্ধন ও নয় যেটা সহজে ছুটে যাবে। এই বন্ধন হওয়ার কথা সমযোজী বন্ধন যেখানে চলে শেয়ারিং।

ছেলে মেয়ে পাশাপাশি থাকলে তাদের মধ্যে কথার স্ফুলিঙ্গ বের হয়। আনন্দ দূঃখ বেদনা ইত্যাদি শেয়ারিং হতে হতে তাদের মধ্যে বন্ধন তৈরি হয়। এক সময় এ বন্ধন রূপান্তরিত হয়ে বিয়ে তে রূপ নেয়। এখন তো জীবন সঙ্গী।

দুইজন এখই চালার (ছাদ) নিচে এখন তো বন্ধন জমে ক্ষীর। ক্ষীর হতে হতে এক সময় দেখা যায় তাদের শেয়ারকৃত উপাদান দ্বারা আর ক্ষীর জমে না তৈরী হয় বিদ্বেষ। এ বিদ্বেষ শেষ পর্যন্ত গড়িয়ে তালাক।

অথচ এই পাশাপাশি থাকার কারণে তাদের মধ্যে বন্ধন হওয়ার কথা ছিলো দৃঢ়। তা না হয়ে হচ্ছে দূর্বল হাইড্রোজেন বন্ধন যা অল্প ধাক্কাতেই ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে প্রথম আলো প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ” করোনার এই সময়ে ঢাকায় তালাক বা বিবাহবিচ্ছেদ বেড়ে গেছে। ওই সালের জুন থেকে অক্টোবর পর্যন্ত পাঁচ মাসে ঢাকার বিবাহবিচ্ছেদ আগের বছরের অর্থাৎ ২০১৯ সালের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়ে গেছে। এই সময়ে দৈনিক ৩৯ টি তালাকের ঘটনা ঘটেছে অর্থাৎ প্রতি ৩৭ মিনিটে একটি তালাক হয়েছে ”

কি ভয়াবহ অবস্থা! তালাক কি আসলেই সমাধান দিতে পারে? অথচ একই সময়ে রাজশাহীতে শতবর্ষী বৃদ্ধ-বৃদ্ধাকে হাত ধরাধরি করে রাস্তায় হাটতে দেখা গেছে।

আপনার একটি সীদ্ধান্তের কারণে পরিবারে অশান্তি। সমাজের কটু কথা কটু দৃষ্টির সম্মুখীন হতে হয় আপনার সন্তানকে। সহপাঠীরা ও ক্ষীণ দৃষ্টিতে তাকায় তার দিকে। তাই সীদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ভেবে দেখুন শতবার।

হিটলার বলেছিলেন,”কোন সীদ্ধান্ত নেওয়ার আগে শতবার ভাবুন তারপর সীদ্ধান্ত নিন”

রুহুল আমিন
শিক্ষার্থী ও সাংবাদিক
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

(বিঃ দ্রঃ সত্যের সকালের সম্পাদকীয় নীতিমালার সঙ্গে লেখকের মতামতের মিল নাও থাকতে পারে। প্রকাশিত লেখাটির আইনগত, মতামত বা বিশ্লেষণের দায়ভার সম্পূর্ণরূপে লেখকের, সত্যের সকাল কর্তৃপক্ষের নয়। লেখকের নিজস্ব মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার সত্যের সকাল নিবে না)

পূর্ববর্তী খবরযে চ্যানেলে দেখা যাবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচ
পরবর্তী খবরসহস্রাধিক তালেবানকে আটক ও পারিয়ান মুক্ত করার দাবি পাঞ্জশিরের প্রতিরোধ ফ্রন্টের

Leave a Reply