দুই বছর পর নেইমারের হ্যাটট্রিক, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন পিএসজি

চ্যাম্পিয়নস লিগে নেইমারের হ্যাটট্রিক ও কিলিয়ান এমবাপ্পের জোড়া গোলে ইস্তানবুল বাসাকসেহিরকে ৫-১ ব্যবধানে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে পিএসজি।
বুধবার রাতে ঘরের মাঠে পার্ক দেস প্রিন্সেসে ‘এইচ’ গ্রুপে দ্বিতীয় দিন তুরস্কের ক্লাবটির মুখোমুখি হয় টমাস টুখেলের শিষ্যরা। কেননা আগের দিন খেলা চলাকালীন বর্ণবাদী মন্তব্যের অভিযোগ তুলে বাসাকসেহিরের খেলোয়াড়রা মাঠ ছাড়লে সেদিন খেলা স্থগিত রাখে উয়েফা। মঙ্গলবার ১৪ মিনিট খেলা হওয়ার পর ম্যাচ স্থগিত করা হয়। পরে গতকাল রাতে সেখান থেকেই খেলা শুরু হয়।

ম্যাচ শুরুর পর ২১ মিনিটে নেইমারের চমৎকার ফিনিশিংয়ে এগিয়ে যায় পিএসজি। মার্কো ভেরাত্তির কাছ থেকে বল পেয়ে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের দুই পায়ের মাঝ দিয়ে বল বের করে নেন নেইমার। কিছুটা এগিয়ে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড খুঁজে নেন জাল। ৩৮তম মিনিটে গোলরক্ষকের ব্যর্থতার সুযোগে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। প্রতি-আক্রমণ থেকে বল পেয়ে রাফিনিয়া বল বাড়ান এমবাপ্পেকে। তিনি খুঁজে নেন অরক্ষিত নেইমারকে। সামনে ছিলেন কেবল গোলরক্ষক, প্রায় তার গা ঘেঁষেই শট নিয়ে বসেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। গোলরক্ষকের পায়ে লেগে গতি কিছুটা কমে বল জড়ায় জালে।

খেলার ৪২তম মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্যবধান ৩-০ করেন এমবাপ্পে। বিরতির ঠিক পরেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন নেইমার। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা আনহেল ডি মারিয়ার সঙ্গে ‘ওয়ান-টু-ওয়ান’ খেলে ডি বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের শটে জাল খুঁজে নেন তিনি। হ্যাটট্রিক পুরো করেন ব্রাজিলিয়ান স্টার। চ্যাম্পিয়নস লিগে এটি তার তৃতীয় হ্যাটট্রিক।

বাসাকসেহির ৫৭তম মিনিটে ব্যবধান কমায়। কর্নার থেকে বল পেয়ে বুলেট গতির শট নেন ইরফান হাকভেচি। নাভাসের একটু সামনে দাঁড়িয়ে থাকা মোহামেত টোপালের গায়ে লেগে দিক পাল্টে বল জড়ায় জালে। তবে পাঁচ মিনিট পর ব্যাবধান ৫-১ করেন এমবাপ্পে।

পূর্ববর্তী খবরস্বপ্নের সেতুতে বসলো শেষ স্প্যান, দৃশ্যমান ৬.১৫ কিলোমিটার।
পরবর্তী খবরবিশ্বে করোনায় প্রাণহানি ছাড়ালো পৌনে ১৬ লাখ!

Leave a Reply