দ্বিতীয় দেশ হিসাবে ফাইজারের ভ্যাকসিনে অনুমোদন বাহরাইনের

ছবি:- সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:- মার্কিন সংস্থা ফাইজার ও জার্মানীর বায়োএনটেকের যৌথভাবে তৈরি করোনা ভ্যাকসিনকে জরুরি ভিত্তিতে ছাড়পত্র দিল বাহরাইন। ব্রিটেনের দ্বিতীয় দেশ হিসাবে তারাই এই ভ্যাকসিনকে অনুমোদ দিয়েছে।

বাহরাইনের জাতীয় স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক দফতরের প্রধান মারিয়ম আল-জালাহমা বলেন, ‘কোভিডের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।’ তবে ফাইজারকে সরকারি ছাড়পত্র দেয়া হলেও, ভ্যাকসিন দেয়া কবে থেকে শুরু হবে, তা স্পষ্ট করে জানায়নি বাইরাইন। যুক্তরাষ্ট্রে এর ভবিষ্যত নির্ভর করছে ১৭ ডিসেম্বরের বৈঠকের উপর। ওই দিন এই ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দেয়া হবে কি না, তা স্থির হবে। তার আগে মডার্নার তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে বৈঠক বসবে ১০ ডিসেম্বর। তবে কোনও ভ্যাকসিনকে আমেরিকায় সরকারি ছাড়পত্র দেয়া হলেও, তা নেয়া বাধ্যতামূলক করা হবে না।

নব-নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ এড়াতে মাস্ক পরার অনুরোধ করেছিলেন তিনি। ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও উৎসাহ দেবেন ঠিকই, কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেশবাসীর ইচ্ছা-অনিচ্ছার উপরে ছেড়ে দেবেন। বাইডেন বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট হিসেবে যা কিছু করা প্রয়োজন, করব। মানুষকে ভ্যাকসিনের বিষয়ে সঠিক কাজ করতে উৎসাহিত করব।’ ইতিমধ্যে আমেরিকায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১ কোটি ৪৭ লাখ ছাড়িয়েছে। গত এক সপ্তাহে দৈনিক সংক্রমণ ২ লাখের নীচে নামছেই না। শেষ ২৪ ঘণ্টাতেও নতুন করে করোনা-আক্রান্ত ২ লাখ ২৯ হাজার। মোট মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ৮৫ হাজার ছাড়িয়েছে। কিন্তু একটি সমীক্ষা রিপোর্ট অনুযায়ী, এই পরিস্থিতিতেও মাত্র ৬০ শতাংশ আমেরিকান ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী। কারণ হিসেবে অনেকেরই বক্তব্য, যে রেকর্ড-গতিতে ভ্যাকসিন তৈরির গবেষণা চলেছে, তাতে এর মানের উপর ভরসা করতে পারছেন না তারা।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) শনিবার আবার জানিয়েছে, ভ্যাকসিন চলে আসা মানেই মহামারি শেষ হয়ে যাওয়া নয়। সংস্থাটির ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রস অ্যাডানম গেব্রিয়েসাস জানান, ভ্যাকসিন চলে এলেও আপাতত মাস্ক পরার নিয়ম ও দূরত্ববিধি মেনে চলতে হবে। সূত্র: আরব নিউজ।

পূর্ববর্তী খবরবঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে কালীগঞ্জে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল।
পরবর্তী খবরচাঁপাইনবাবগঞ্জের পুকুরে এক বৃদ্ধের লাশ ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার।

Leave a Reply