নেপালের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে গেল জামাল ভূঁইয়ারা

২০০৫ সালের পর সাফে আবার ফাইনাল খেলতে হলে নেপালের বিপক্ষে আজ জিততেই হবে বাংলাদেশকে। বিপরীতে নেপালের দরকার কেবল ড্র। এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে প্রথমার্ধটা মনে রাখার মতোই হয়েছে বাংলাদেশের। ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে মাঠ ছেড়েছে জামাল ভূঁইয়ার দল। 

প্রথমার্ধে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা ১-০ গোলের লিড নিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরেছে। এই স্কোরলাইন আর ৪৫ মিনিট ধরে রাখলে ২০০৫ সালের পর আবার সাফের ফাইনাল খেলবে বাংলাদেশ।

দুই ম্যাচ পর একাদশে ফেরা ফরোয়ার্ড সুমন রেজার গোলে বাংলাদেশ প্রথমার্ধে লিড নিয়েছে। টুর্নামেন্টের আগের দুই গোলের মতোই আজকের গোলটি এসেছে ডেডবল থেকেই। অধিনায়ক জামালের ফ্রি-কিক সাদউদ্দিনের মাথা ঘুরে বল আসে সুমনের কাছে। সুমন ঠান্ডা মাথায় জালে পাঠান। এগিয়ে যাওয়ার পর প্রথমার্ধের বাকি সময় বাংলাদেশ ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করেছে। বিশেষ করে আরো দুই কর্নার থেকে। সেই দুই কর্নারে নেপালের গোলবারে ভীতিকর কিছু করতে পারেনি বাংলাদেশ।

নেপাল গোল পরিশোধের চেষ্টা করেছে। দুই-তিন বার সংঘবদ্ধ আক্রমণে বাংলাদেশের রক্ষণে কিছুটা আতঙ্ক ছড়ালেও বিপদ হয়নি। নেপাল ০-১ গোলে পিছিয়ে থাকলেও তাদের ম্যাচে ফেরার সুযোগ শেষ মিনিট পর্যন্ত আছে। স্কোরলাইন ১-১ করতে পারলেই তারা ৭ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনাল খেলবে। সাফ পাবে নতুন ফাইনালিস্ট। বাংলাদেশ এই স্কোরলাইন ধরে রাখতে পারলে চতুর্থবারের মতো খেলবে দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপের ফাইনাল।

পূর্ববর্তী খবরইউপি নির্বাচনে আ” লীগের কিছু ইউপির প্রার্থী পরিবর্তন
পরবর্তী খবরফাঁসির মঞ্চে বললেন আমি খুন করিনি

Leave a Reply