পাবনায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ ও আহত ১০!

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুরে পাবনার সাঁথিয়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দের জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ১জন নিহত ও ১০জন কমবেশি আহত হয়েছে। গুরুতর আহত ৫জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উপজেলার ধোপাদহ ইউনিয়নের দয়রামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাজির উদ্দিন (৩৫) দয়রামপুর গ্রামের ইলবাজ প্রামানিকের ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ধোপাদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি দয়রামপুর গ্রামের বাসিন্দা এনামুল কবির শশি ও তাজমুল হোসেন মেম্বার পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

সম্প্রতি শশি গ্রুপের জসিম উদ্দিন নামের একজনকে মারপিট করে তাজমুল গ্রুপের লোকজন। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পর এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এ সময় নাজিরসহ অন্যরা ছাত্রলীগ নেতা শশির বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। জানতে পেরে তাজমুল মেম্বার ও তার লোকজন দুপুরে ওই বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর শুরু করলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে।

এতে নাজির ও তাজমুল মেম্বারসহ অন্তত দশজন আহত হয়।

তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নাজির উদ্দিনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে সুমন হোসেন, নাছির উদ্দিন, ইলবাজ প্রামানিক, রাজা হোসেন, জোলেকা খাতুন, তাজমুল মেম্বারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

সংঘর্ষ ও হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবার থেকে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

পূর্ববর্তী খবরআজ গণহত্যা দিবস
পরবর্তী খবরবাঙালি জাতির আত্মপরিচয় অর্জনের দিন ২৬ মার্চ : প্রধানমন্ত্রী

Leave a Reply