পাবনার ভাঙ্গুড়া টিভি দেখতে না দেওয়ায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা!

পাবনাঃ- পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় টিভি দেখতে না দেওয়ায় ৭ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।

রবিবার (০৬ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের দিলপাশার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সাথী শীল (১৩) নামের ওই গ্রামের রবীন্দ্র রায় শীলের মেয়ে ও দিলপাশার উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার থেকে জানা যায়, সাথী শীল দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭ম শ্রেণিতে পড়া লেখা করত।
কিন্তু বাড়িতে কোনো কাজে সহযোগিতা ও পড়া লেখা না করে শুধু নিজ ঘরে অবস্থান করে টিভি দেখত। এ টিভি দেখা নিয়ে সাথীর পিতা রবীন্দ্রশীল ঘটনার দিন সকালে মেয়েকে বকা দিয়ে টিভি দেখতে নিষেধ করেন।

এরপর বাড়িতে সবার অগোচরে সকাল ১০টার দিকে নিজ ঘরে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে সাথী।

পরিবারের লোকজন সাথীকে দেখতে না পেয়ে তার ঘরে গিয়ে সাথীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে পরিবারের লোকজন সাথীকে মৃত অবস্থায় নিচে নামায় এবং পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে ভাঙ্গুড়া থানার এসআই শারিফুল ইসলাম লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনার বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, ময়নাতদন্তের রির্পোট হাতে পেলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরএরশাদকে স্বৈরাচারী বলা যাবে না!
পরবর্তী খবররূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে গাঁজাসহ একজন গ্রেপ্তার।

Leave a Reply