ফেসবুকের নামে পরিবর্তন; কী হবে ফেসবুকের নতুন নাম

ছবি:- সংগৃহীত

ফেসবুকের নামে পরিবর্তন আসবে, এমন খবর ব্যবহারকারীদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। অনেকেই সম্ভাব্য নাম প্রস্তাব করেছেন। সেই প্রস্তাবনার বেশির ভাগই তাঁরা করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্ল্যাটফর্ম টুইটারে গিয়ে।

কেউ কেউ বলেছেন নাম সংক্ষেপ করে ‘এফবি’ করা হোক। অনেকেই এ নামে ফেসবুকের উল্লেখ করে থাকেন। আবার ফেসবুকের প্রথম নাম ‘দ্য ফেসবুক’ করার দাবিও এসেছে। নাম পরিবর্তনের পরিকল্পনার খবর প্রথম প্রকাশ করে দ্য ভার্জ। ওয়েবসাইটটির আরেক প্রতিবেদনে সম্ভাব্য নাম হিসেবে ‘হরাইজন’-এর উল্লেখ পাওয়া যায়। বেশ আগে থেকেই এ নামে একটি ভার্চ্যুয়াল রিয়েলিটি প্ল্যাটফর্ম তৈরিতে কাজ করছে ফেসবুক। মেটাভার্সের ধারণার সঙ্গেও যা মিলে যায়।

মেটাভার্সে ফেসবুকের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সেবা পাওয়া যাবে ভার্চ্যুয়াল জগতে, যে জগতে ব্যবহারকারীরা যুক্ত হয়ে বাস্তব দুনিয়ার মতো একে অপরের সঙ্গে কথোপকথন চালাতে পারবেন, একসঙ্গে কিছু কিছু কাজও হয়তো করতে পারবেন। ভার্চ্যুয়াল আর বাস্তব জগতের বিভেদ কমে যাবে বলা হচ্ছে, যা অগমেন্টেড এবং ভার্চ্যুয়াল রিয়েলিটি প্রযুক্তির সাহায্যে সম্ভব হবে।

‘মেটা’ নামটাও শোনা যাচ্ছে। ফেসবুকের সাবেক কর্মকর্তা সামিদ চক্রবর্তীসহ অনেকে এ নাম প্রস্তাব করেছেন। তা ছাড়া মেটা ডটকমে ঢুকলে সেটি মেটা ডট অর্গ ওয়েবসাইটে নিয়ে যায়। চ্যান জাকারবার্গ ইনিশিয়েটিভের উদ্যোগে বায়োমেডিকেল গবেষণা নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট সেটি। দাতব্য সংস্থাটি প্রতিষ্ঠা করেন মার্ক জাকারবার্গ ও তাঁর স্ত্রী প্রসিলা চ্যান।

দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে ব্র্যান্ড পুনর্গঠনের উদ্দেশ্য হিসেবে মেটাভার্সের কথাই বলা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে নতুন একটি মাতৃপ্রতিষ্ঠান গঠন করে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জারসহ প্রতিষ্ঠানটির সব সেবা সেটির অধীন আনা হতে পারে। গুগলের সব সেবা যেমন ‘অ্যালফাবেট’ নামের প্রতিষ্ঠান গঠন করে সেটির অধীন নিয়ে যাওয়া হয় ২০১৫ সালে।

‘মেটা’ নামটি গ্রহণের সম্ভাব্য আরেকটি কারণ হলো, সিলিকন ভ্যালির প্রতিষ্ঠানগুলো সংক্ষিপ্ত নাম পছন্দ করে। এটাকে মর্যাদাকর মনে করে তারা। অ্যালফাবেটের ওয়েবসাইট ঠিকানা যেমন এবিসি ডট এক্সওয়াইজেড। আর তা ছাড়া, মেটা নাম ব্যবহার করলে সেটাকে মেটাভার্সের সংক্ষিপ্তরূপ হিসেবেই দেখবে মানুষ।

২০১৭ সালে মেটা নামের একটি প্রতিষ্ঠান অধিগ্রহণ করে চ্যান জাকারবার্গ ইনিশিয়েটিভ। গবেষণাপত্র খোঁজার জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির উন্নয়নে কাজ করছিল প্রতিষ্ঠানটি। তাদের ওয়েবসাইটের ঠিকানা মেটা ডট অর্গ।

দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেসবুকের নতুন নাম জানা যাবে ২৮ অক্টোবরের মধ্যে।

পূর্ববর্তী খবরনাঈমের পর সাজঘরে লিটন
পরবর্তী খবর০৩য় ধাপের ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী চুড়ান্ত করতে আ’লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভা চলছে

Leave a Reply