বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প

আয়শা সিদ্দিকা উর্মি, ববি প্রতিনিধি:- ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল নিজে কিছু করবেন, এমন কিছু করবেন যাতে একদিন পুরো দেশের মানুষ তাকে চিনতে পারে।আর সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে অদম্য ইচ্ছাশক্তি এবং সাহস নিয়ে এগিয়ে চলছেন তিনি।বলছিলাম বরিশালের স্বনামধন্য অনলাইন প্রতিষ্ঠান “বিখ্যাত পণ্য সম্ভার”-এর প্রতিষ্ঠাতা গাজী হাদিউজ্জামান এর কথা। বর্তমানে তিনি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগে অধ্যয়নরত আছেন।

গাজী হাদিউজ্জামান-এর জন্ম খুলনার চুকনগরে।মাত্র আড়াই বছর বয়সে তিনি তার বাবাকে হারান।উচ্চমাধ্যমিকের পরে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার জন্য ভর্তি হন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে।

মায়ের আদর্শে বড়ো হওয়া হাদিউজ্জামানের ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল দেশ ও দশের সেবা করা। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পরে তার এই স্বপ্ন যেন খোলা আকাশে পাখির মতো ডানা মেলে ধরে।যুক্ত হন স্বেচ্ছায় রক্তদান সংস্থা বাঁধন-এর সাথে।মুমূর্ষু রোগিকে রক্ত সংগ্রহ করে দেয়ায়ই যেন তার নেশা এবং পেশায় পরিণত হয়ে যায়।পাশাপাশি তার কর্মপরিধিও বিস্তৃত হতে থাকে।পথশিশুদের খাদ্য বিতরণ,অসহায়দের শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচিসহ বিভিন্ন সেবামূলক কাজকর্মে তিনি জড়িয়ে পড়েন।এছাড়াও ২০১৪ সালে তিনি নিজ গ্রামে “শিক্ষার্থী ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থা” নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গড়ে তোলেন।

বয়সে তরুণ সদা হাস্যোজ্জ্বল, স্পষ্টভাষী এই মানুষটির জীবনে এক ঘন কালো মেঘের আবির্ভাব ঘটে ২০১৯ সালের জুলাই মাসে। প্রাণঘাতী জিবিএস ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন তিনি।তার সমস্ত শরীর প্যারালাইজড হয়ে যায়। চিকিৎসার জন্য তাকে ভর্তি করা হয় ঢাকা নিউরোসাইন্স হাসপাতালে। ডাক্তার পরিস্কারভাবে জানিয়ে দেন তার চিকিৎসার জন্য ১০-১১ লাখ টাকার প্রয়োজন। মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য এ যেন এক পাহাড়সম বোঝা।পরিবারের সম্বল এবং বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা দেশের মানুষের আর্থিক সহায়তায় এক মাসের নিবিড় চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসেন হাদিউজ্জামান।

তার এই অসুস্থতাই যেন তাকে নতুন করে অনুপ্রেরণা যোগায় নতুন কিছু করার।ছাত্রাবস্থায় স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে বরিশালের রুপাতলি এলাকায় গড়ে তোলেন ”লজিক একাডেমি এন্ড আর্ট কেয়ার” নামক একটি কোচিং সেন্টার। নিজে স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের(ববি) একঝাঁক তরুণ মেধাবী শিক্ষার্থীকে কাজের সুযোগ করে দেন নিজের কোচিং সেন্টার-এ।কিন্তু করোনা মহামারির অশুভ থাবায় সে পথও বন্ধ হয়ে যায়। তারপরেও থেমে থাকে নি দুঃসাহসী এই যুবক।পুরো দেশজুড়ে যখন ভেজাল পণ্যের ছড়াছড়ি তখন খাঁটি পণ্য নিয়ে মানুষের দোরগোড়ায় হাজির হন গাজী হাদিউজ্জামান। গড়ে তোলেন অনলাইন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান “বিখ্যাত পণ্য সম্ভার”(জুলাই,২০২০)।
শুধু সাতক্ষীরার মধু দিয়ে যাত্রা শুরু করা “বিখ্যাত পণ্য সম্ভার”-এর বর্তমান পণ্যের সংখ্যা ২১ টি। এর মধ্যে রয়েছে খুলনার বিখ্যাত চুইঝাল,সুন্দরবনের খাঁটি মধু,সিলেটের চা-পাতা,খাঁটি সরিষার তেল,ঘী,চট্টগ্রামের শুটকি প্রভৃতি।প্রতিষ্ঠানটি পুরো দেশে হোম ডেলিভারির মাধ্যমে সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে।উল্লেখ্য যে, প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে দেশের বাইরেও(নিউইয়র্ক,ভারত) সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

ব্যবসার পাশাপাশি তিনি “এন্টিভাইরাস” নামক নিজের লেখা একটি বইও প্রকাশ করেন।জীবন যুদ্ধে সংগ্রামী সফল উদ্যোক্তা হাদিউজ্জামান বলেন,”আমি সবসময় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই। ভবিষ্যতে একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করার ইচ্ছা আছে যেখানে ৫০০-৭০০ মানুষকে চাকরি দিতে পারবো। বেকারত্ব কমানো ও সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে দাঁড়ানোই আমার মূল লক্ষ।”

পূর্ববর্তী খবররোনাল্ডো শীর্ষে, ৭ ও ১৬ নম্বরে মেসি-নেইমার
পরবর্তী খবরবাঘায় কঠোর লকডাউনে তৎপর উপজেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, অমান্যকারীদের জরিমানা।

Leave a Reply