বৃদ্ধার কান ছিঁড়ে ছিনতাই করা দুল উদ্ধার; গ্রেপ্তার ৩ জন

মুক্তারুজ্জামান, আদমদিঘী (বগুড়া):- বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারে রহিমা বেওয়া (৬৫) নামে এক বৃদ্ধার কান ছিঁড়ে স্বর্ণের দুল ছিনতাইয়ের ৯ ঘন্টা পর রতন নামের এক ছিনতাইকারির বাড়ি থেকে তার সেই দুলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।এছাড়া রতনসহ আরো তিন ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ওই বৃদ্ধার ছেলে রুবেল হোসেন বাদী হয়ে থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

পুলিশ ও দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দমদমা গ্রামের মৃত কছির প্রামানিকের স্ত্রী রহিমা বেওয়া পেনশনের টাকা তুলতে সান্তাহার পূবালী ব্যাংকে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় সান্তাহার পৌর শহরের ডালপট্টি মহল্লার গলি অতিক্রম করার সময় ছিনতাইকারীরা পিছন থেকে ওই নারীকে ডাক দেয়। এরপর তার বাম কানের দুলে টান দেয় এবং তার কানের লতি ছিঁড়ে তিন আনা ওজনের স্বর্ণের দুলটি নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে ওই বৃদ্ধার কান থেকে রক্ত ঝরতে থাকে। খবর পেয়ে মামলার বাদী রুবেল পুরাতন রাজারের দোকান থেকে দৌঁড়ে এসে তার মাকে উদ্ধার করে স্থানিয় একটি চিকিৎসালয়ে চিকিৎসা দিয়ে তাকে বাড়িতে নেয়।

বুধবার রাতেই পুলিশ সান্তাহার পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে উপজেলার সান্তাহার ঢাকাপট্টির মৃত আতোয়ার রহমানের ছেলে তুষার ইসলাম রতন (২৯), সান্তাহার কলসা রথবাড়ির মৃত অরুন চন্দ্র সরকারের ছেলে মিঠু ওরফে আটুল (৩৬) ও নওগাঁ সদরের পাথরকুটা গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে শহিদ হোসেনকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে।ফাঁড়ি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল ওয়াদুদ জানান,
আসামীদের গ্রেপ্তারের পর রতনের প্রাথমিক জবানবন্দি অনুযায়ী তার বাড়ি থেকে স্বর্ণের দুলটি উদ্ধার করা হয়েছে।

তাছাড়া রতনের সাথে বাঁকি দুই আসামীরাও ছিনতাইকালে ছিলেন বলে স্বীকার করেছে।সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক অরিফুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তারকৃত রতন সহসকলেই মাদকাশক্ত। তাদের বিরুদ্ধে থানায় বেশ কয়েকটি মামলাও রয়েছে। মাদকের টাকা সংগ্রহ করতে তারা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। পুলিশ পৌরবাসীকে নিরাপত্তা দিতে সদা সচেষ্ট রয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরকর্মকারদের টুং টাং শব্দে মুখরিত গোয়ালকান্দি বাজার
পরবর্তী খবরনোবিপ্রবি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী -২০২১ উদযাপন

Leave a Reply