মাহমুদউল্লাহ-সাকিবদের খুলনায় সঙ্গী এমপি মাশরাফিও !

Photo collection: - Daily Inqilab

অনলাইন ডেস্ক:- বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে এখন পর্যন্ত না খেলেও যেন খেলছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ক’দিন আগে অনুশীলনে আসার পর থেকেই অভিজ্ঞ এই অধিনায়ককে পেতে মুখিয়ে ছিল জেমকন খুলনা, ফরচুন বরিশাল ও মিনিস্টার গ্রæপ রাজশাহী। শেষদিকে আগ্রহ দেখায় বেক্সিমকো ঢাকাও। তবে তার আগে দেশসেরা এই পেসারকে পেরোতে হতো ফিটনেস পরীক্ষার বৈতরণী। গতকাল সকালে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে মাশরাফি এসেছিলেন সেই পরীক্ষা দিতেই। বিসিবি ট্রেনার তুষার কান্তি হাওলাদারের অধীনে ফিটনেসের পরীক্ষা দিয়েছেন মাশরাফি। বিসিবির এই ট্রেনার নিশ্চিত করেছেন, ফিটনেস পরীক্ষায় উতরে গেছেন মাশরাফি।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টিতে খেলতে মাশরাফির কোনো বাধা নেই- এই খবর চাউর হতেও সময় লাগেনি। বিসিবিও যেন বসে ছিলেন এই অভিজ্ঞ দলনেতাকে মাঠের ক্রিকেটে ফেরাতে। তাইতো কাল বিলম্ব না করেই ব্যবস্থা করেন লটারির। গতকালের সেই লটারিতে বিসিবি পরিচালক ও টুর্নামেন্টের টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য জালাল ইউনুসের তোলা টোকেনে ছিল খুলনার নাম। হ্যাঁ, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের দলেই খেলছেন সফল এই অধিনায়ক। এর আগে সময়ের সেরা এই দুই তারকাকেও ড্রাফটের লটারি থেকেই পেয়েছিল আসরের সবচেয়ে দামী দলটি।

হ্যামস্ট্রিংয়ে চোটের কারণে টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ছিল না মাশরাফির নাম। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বিসিবি জানিয়েছিল, টুর্নামেন্ট চলার সময় মাশরাফি ফিট হলে এবং একাধিক দল তাকে পেতে আগ্রহী হলে তাদের মধ্যে লটারি করা হবে। এই টুর্নামেন্টের জন্য জৈব-সুরক্ষা বলয়ে ঢোকার আগে অবশ্য কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হতে হবে। গতকালই তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিন সপ্তাহের বেশি করোনাভাইরাসে ভুগে জুলাইয়ের মাঝামাঝি সেরে ওঠেন বাংলাদেশর সফলতম ওয়ানডে অধিনায়ক। যদি সবকিছু ঠিক থাকে তবে আগামীকালই মাঠে দেখা যেতে পারে মাশরাফিকে। খুলনা এদিন লড়বে গাজী গ্রæপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে।

মাশরাফি সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন গত বিপিএলের এলিমিনেটর ম্যাচে। দীর্ঘদিন পর ছোট সংস্করণে গতিময় ক্রিকেটে ফিরছেন বাংলাদেশের সফলতম অধিনায়ক। সেটিও আবার চোট-আঘাতের সঙ্গে লড়ে। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টিকে সামনে রেখে দুই মাস আগেই মাঠে ফিরেছিলেন মাশরাফি। কিন্তু ফিটনেসের কাজ করতে গিয়ে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান তিনি। এরপর নিজ পুত্র ও কন্যার করোনাভাইরাস ধরা পড়ায় গৃহবন্দী থাকতে হয় মাশরাফিকেও। ব্যাঘাত ঘটে মাশরাফির প্রস্তুতির। এসবের কারণে মাশরাফি ছিলেন না বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টির ড্রাফটে। তবে টুর্নামেন্টের চার দল আগ্রহ দেখালে মাশরাফির জন্য টুর্নামেন্টের দুয়ার খোলে লটারিতে।
খবর:- ইনকিলাব এর।

পূর্ববর্তী খবরসহিংস বিক্ষোভ প্যারিসে!
পরবর্তী খবরমামুনুল হক-বাবুনগরীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতা মামলার আবেদন!

Leave a Reply