মোংলা বন্দর কতৃপক্ষের সংবাদ সম্মেলন

দেশের অন্যতম সমুদ্র বন্দর মোংলা নতুন রেকর্ড গড়েছে। বিদায়ী অর্থবছর ২০২০-২১ সালে সর্বোচ্চ ৯৭০ টি জাহাজ আগমনের ফলে এই রেকর্ড করে বন্দরটি। এসময়ে মোংলা বন্দরে রেকর্ড পরিমান পণ্য হ্যান্ডলিংও (ওঠানামা) হয়েছে। গেল অর্থ বছরে ১১৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ পণ্য খালাস করেছিল। যা থেকে বন্দর নীট মুনাফা আয় করে ১৩০ কোটি টাকা। এটি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৯ কোটি টাকা বেশি।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা রবিবার (৪ জুলাই) বন্দরের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বন্দর কর্তৃপক্ষের পরিচালক (ট্রাফিক) মোস্তফা কামাল বলেন, ২০২০-২১ অর্থ বছরে বন্দরে আগত ৯৭০ টি জাহাজ থেকে ১১৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ পণ্য খালাস হয়। এছাড়া ৪৩ হাজার ৯৫৯ টিইইউজ কন্টেইনার হ্যান্ডলিং হয় এবং ১৪ হাজার ৪৭৪ টি রিকন্ডিশন গাড়ী আমদানি হয়। তবে এসব গাড়ির ৪০ শতাংশ খালাসও হয়েছে বলে দাবি করে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

করোনা কালীন সময়ে নয়টি মেগা প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে জানিয়ে এদিন বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, বন্দর উন্নয়নে মাষ্টার প্লান তৈরীর কাজ চলছে এবং এটি বাস্তবায়ন হলে মোংলা বন্দর দেশের অর্থনীতি ও আমদানি রপ্তানি বাণিজ্যে ব্যপক ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

একই সাথে চলতি অর্থ বছরে এই বন্দরে এক হাজারেরও অধিক জাহাজ আগমনসহ ৩৬০ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

২০২০-২১ অর্থ বছরে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের অর্জন উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন এম আবদুল ওয়াদুদ তরফদার, পরিচালক (প্রশাসন) মোঃ শহিনুর আলম, হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন, প্রধান অর্থ ও হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, পরিকল্পনা প্রধান জহিরুল হক, পরিচালক (ট্রাফিক) মোস্তফা কামাল, উপ প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মাহাবুবুর রহমান মিনা ও বন্দর চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব মোঃ নিয়ামুর রহমানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

 

পূর্ববর্তী খবরঅনলাইনে পরীক্ষা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে অধিকাংশ কুবি শিক্ষার্থী!
পরবর্তী খবরক্লিকেই বাসায় পৌঁছাবে কোরবানির পশু

Leave a Reply