মোহনপুরে “নোট লিখে” কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

রাজশাহীর মোহনপুর সরকারি কলেজর মনোবিজ্ঞান বিভাগের অনার্সের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী বিউটি খাতুন (২০) “আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নেই” এমন একটি নোট লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। সে উপজেলার কেশরহাট পৌর সভার হরিদাগাছি গ্রামের মো. সাইদুর রহমানের মেয়ে।

গতকাল বুধবার রাতে (০৩ নভেম্বর) উপজেলার বাকশিমইল ইউনিয়নের সইপাড়া মেডিকেল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এই বিষয়ে মোহনপুর থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, নিহত বিউটি খাতুন ছোট বেলা থেকে মোহনপুর মেডিকেলর গেটের পূর্ব পাশে খালু মোঃ হবিবর রহমানের বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করতেন। গতকাল রাত সাড়ে ১০টার রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে পড়াশুনার উদ্দ্যেশে ঘরে যায়। বাড়িতে বলে, আমি রাত পর্যন্ত পড়াশুনা করবো সকালে যেন কেউ না ডাকে। পরে রাতের যেকোন সময় আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নেই” এমন একটি নোট লিখে ঘরের রেখে তীরের সাথে দড়িঁ দিয়ে আত্মহত্যা করেন। তবে লাশটি দড়িঁ ছিড়ে ঘরে মেজেতে পড়েছিল।

বৃহস্পতিবার সকালে নিহতের খালা শরিফা বেগম সকালে হাটতে বাহির হয় এবং বাড়িতে ফিরে এসে তাকে ডাকাডাকি শুরু করলে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। পরে তিনি শয়ন ঘরের মেজেতে লাশ দেখতে পেয়ে মোহনপুর থানার পুলিশ খবর দেন। পুলিশ এসে সুরতহাল প্রতিবেদন লিখে নেন এবং ঘটনাস্থল থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করে সেখানে লিখে ছিল “আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ি নয়।”

পরিবার থেকে পুলিশের নিকট জানায়,, সে দীর্ঘ দিন ধরে পেটের ব্যথা ও শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে ভুগছে। এই জন্য আত্মহত্যার করতে পারে বলে তারা ধারনা করছে।

রাজশাহী জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অলক বিশ্বাস, মোহনপুর থানার ওসি তদন্ত মোঃ তৌহিদুর রহমানকে সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে দেখছে পুলিশ। থানায় ইউডি মামলা হয়েছে। নিহতের পরিবারের লোকজন কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। 

পূর্ববর্তী খবরনিজের অপরাধ ঢাকার জন্য ইসরাইল ইরান-বিরোধী প্রচারণায় লিপ্ত
পরবর্তী খবর‘ইরানের কাছে বারবার পরাজিত হওয়ার পরও আমেরিকার শিক্ষা হয় নি’

Leave a Reply