যার মাথার দাম ছিল ৫৭ লাখ টাকা

'অজানা' রোগে সেই মাওবাদী নেতার মৃত্যু,

ভারতের মাওবাদীদের অন্যতম শীর্ষ নেতা আক্কিরাজু হরগোপাল ওরফে রামকৃষ্ণ মারা গেছেন। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ছত্তিশগড়ের দক্ষিণ বস্তার এলাকায় দণ্ডকারণ্যের গভীর জঙ্গলে এক অজানা রোগে তার মৃত্যু হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) এ তথ্য নিশ্চিত করে ভারতীয় পুলিশ। যদিও সিপিআই (মাওবাদী) দলের পক্ষ থেকে তাদের কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ সদস্য রামকৃষ্ণের মৃত্যুর খবরের সত্যতা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করা হয়নি।

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুর জেলার সন্তান মাওবাদী নেতা রামকৃষ্ণ জনপ্রিয় ছিলেন ‘আরকে’ নামে। তাকে জীবন্ত অবস্থায় ধরে দেওয়ার জন্য অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার ৫০ লাখ রুপি (৫৭ লাখ টাকা) পুরস্কার ঘোষণা করেছিল।

কোন্ডাপল্লী সীতারামাইয়ার গড়া সংগঠন সিপিআইএমএল পিপল্‌স ওয়ার গ্রুপ (পিডব্লিউজি)-তে আরকে যোগ দেন সত্তরের দশকের শেষের দিকে। পরে পিডব্লিউজি মিশে যায় সিপিআই মাওবাদী সংগঠনে। মৃত্যুর সময় পর্যন্ত তিনি অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উড়িষ্যা সীমান্তে মাওবাদীদের স্পেশাল জোনাল কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ছিলেন।

২০০৪ সালে অন্ধ্রপ্রদেশের সেই সময়ের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াই এস রাজশেখর রেড্ডি যখন মাওবাদীদের সঙ্গে শান্তি আলোচনা প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন, তখন মাওবাদীদের পক্ষে সেই প্রক্রিয়ার নেতৃত্বে ছিলেন রামকৃষ্ণ। ২০০৩ সালে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নাইডুর ওপর হামলা এবং ২০০৮ সালে বালিমেলায় হামলায় জড়িত আসামিদের একজন ছিলেন এ রামকৃষ্ণ। এ ছাড়াও রামকৃষ্ণ অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উড়িষ্যায় অসংখ্য হামলার মাস্টারমাইন্ড ছিলেন।

পূর্ববর্তী খবরকুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ব্যাচের মাঝে সংঘর্ষ; আহত ৫
পরবর্তী খবরআ.লীগের মনোনয়ন বিতরণ শনিবার থেকে

Leave a Reply