রাজশাহীতে ৩য় ধাপের ইউপি নির্বাচনে ৬৫৫ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে রাজশাহীর দুইটি (পবা ও মোহনপুর) উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন মোট ৬৫৫ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। চেয়ারম্যান পদে ৫৩ জন, সংরক্ষিত আসনে ১৪১ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৪৬১ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মোহনপুর উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মোহনপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত আসনে ও সাধারণ সদস্য পদে ৬টি ইউনিয়নে ২৯০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তার মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৫ জন, সংরক্ষিত আসনে ৬০ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২০৫ জন। 

ধুরইল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৩ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা, বর্তমান চেয়ারম্যান কাজিম উদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা খন্দকার রবিউল ইসলাম (বিদ্রোহী)। সাধারণ সদস্য পদে ৩৬ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৩ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজাহারুল ইসলাম বাবলু, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আফজাল হোসেন বকুল (বিদ্রোহী) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী তাজরুল হক দেওয়ান। সাধারণ সদস্য পদে ২৯ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১১ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ।

রায়ঘাটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বাবলু হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা রুস্তম আলী, জাপা নেতা মোহাম্মাদ দুলাল হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আক্কাস আলী সরদার, আব্দুল মান্নান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা শ্রী সুরঞ্জিত কুমার সরকার (বিদ্রোহী)। সদস্য পদে ২৮ জন ও সংরক্ষিত সদস্য ৬ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মৌগাছি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আল আমিন বিশ্বাস, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা আবুল হোসেন খান, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন (বিদ্রোহী) ও জাতীয় পাটি মনোনীত হারেস আলী। সদস্য পদে ৩১ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১২ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

বাকশিমইল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৩ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বর্তমান চেয়ারম্যান আল মোমিন শাহ গাবরু (বিদ্রোহী) ও বিএনপি নেতা মাহাবুব আর রশিদ। সদস্য পদে ৪২ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১১ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

জাহানাবাদ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হযরত আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা, বর্তমান চেয়ারম্যান এমাজ উদ্দিন খান, স্বতন্ত্র প্রার্থী মতিউর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল লতিফ (বিদ্রোহী), স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাবুদ্দিন মোল্লা ও জাতীয় পাটি মনোনীত দেলোয়ার হোসেন। সদস্য পদে ৩৮জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

অপর দিকে পবা উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, পবা উপজেলায় চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত আসনে ও সাধারণ সদস্য পদে ৭টি ইউনিয়নে ৩৬৫ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তার মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৮ জন, সংরক্ষিত আসনে ৮১ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২৫৬ জন। 

দর্শনপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান কামরুল হাসান রাজ ও স্বতন্ত্র সাবেক চেয়ারম্যান রমজান আলী, ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী মাইনুল ইসলাম, স্বতন্ত্র শাহাদত হোসেন, বাবলুর রহমান ও আম্মাতুন্নেছা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং সংরক্ষিত তিন আসনে ৯ জন এবং সাধারণ সদস্যের ৯টি ওয়ার্ডে ২৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

হরিপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০২ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান বজলে রেজবি আল হাসান মুঞ্জিল ও স্বতন্ত্র সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং সংরক্ষিত তিন আসনে ৯ জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ২৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

হুজুরীপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০২ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা ও স্বতন্ত্র সাবেক চেয়ারম্যান দেওয়ান মোঃ রেজাউল করিম মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং  সংরক্ষিত তিন আসনে ৮ জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ৩০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

বড়গাছী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী মনোনীত শাহাদৎ হোসেন সাগর ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আফজাল হোসেন, সোহেল রানা ও মুঞ্জুর মুর্শেদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং সংরক্ষিত তিন আসনে ১২ জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ৪৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

দামকুড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত রফিকুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, রেজাউল করিম সরকার, সাজাহান আলী ও তরিকুল ইসলাম চুন্নু মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং সংরক্ষিত তিন আসনে ১৩জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ২৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

হড়গ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত ফারুক হোসেন, ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী ফজলুর রহমান, স্বতন্ত্র বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, এ্যাড. মো. আবু আসলাম ও তাজুল ইসলাম মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এবং সংরক্ষিত তিন আসনে ১৩ জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ৩৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

পারিলা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ০৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত ফাহিমা বেগম ও স্বতন্ত্র বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল বারী ভুলু, সাইদ আলী ও রাজু আহম্মেদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এই ইউনিয়নে সংরক্ষিত তিন আসনে ১৪ জন এবং সাধারণ ৯টি ওয়ার্ডে ৫১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

উল্লেখ্যঃ নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল গতকাল মঙ্গলবার (২ নভেম্বর)। মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই ৪ নভেম্বর, মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাইয়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল ৫ নভেম্বর থেকে শুরু হবে এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১১ নভেম্বর ও ১২ নভেম্বরের পর দেওয়া হবে প্রতীক বরাদ্দ। ২৮ নভেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠত হবে।

পূর্ববর্তী খবরঈশ্বরদীতে ইউপি নির্বাচনে ৩৫৩ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল
পরবর্তী খবরমেডিকেলে সশরীরে ক্লাস শুরু ৬ নভেম্বর

Leave a Reply