শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে করোনাকালে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তরের ভর্তি ফি হ্রাসের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত রোববার

কুবি প্রতিনিধি: শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে করোনাকালীন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) স্নাতকোত্তরের ভর্তি ফি হ্রাসের বিষয়ে ইতিবাচক মত দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী।

আজ শুক্রবার (২ জুলাই) কুবি উপাচার্য এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, স্নাতকোত্তরের ভর্তি ফি হ্রাসের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। আমি এই বিষয়ে সিন্ডিকেট সভায় ইতিবাচক মত দিয়েছি।

একই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মোঃ আবু তাহের বলেন, এই সিদ্ধান্ত সিন্ডিকেট সভায় গৃহীত হয়েছে। তবে রবিবারের সভার পরে তা নিশ্চিত করে জানিয়ে দেয়া হবে।

করোনাকালীন বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশিরভাগ শিক্ষার্থী বাড়িতে অবস্থান করছেন। স্বাভাবিক সময়ে এসব শিক্ষার্থীরা টিউশন বা খণ্ডকালীন চাকরি করে নিজের খরচ নিজেরাই চালাতেন৷ কিন্তু বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে তাদের অনেকেই আর্থিক অসচ্ছলতায় ভুগছেন।

এ অবস্থায় একজন শিক্ষার্থীর পক্ষে আগের মত বিভাগের সহযোগী সংগঠন ফি, ল্যাব ফি, হলসহ আনুষঙ্গিক ফি যা বিভাগভেদে তিন হাজার থেকে ছয় হাজার টাকা পরিশোধ করতে অনেকটাই হিমশিম খেতে হচ্ছে। স্নাতকোত্তরের ভর্তি ফি মওকুফের ইতিবাচক সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রত্নতত্ত্ব ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সামিহা আজাদ বলেন, অবশ্যই এটা একটা ভালো উদ্যোগ। তবে হলের ফি টাও যেন মওকুফ করে দেয়া হয়। বন্ধে আমরা হলে না থাকলেও অনেক ফি জমেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ জুন বিশ্ববিদ্যালয়টির সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানববন্ধন করে স্নাতকোত্তরের ভর্তি ফি কমানোর দাবি জানান। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দেন।

পূর্ববর্তী খবরকরোনায় একদিনে হাবিপ্রবি’র দুই কর্মচারীর মৃত্যু
পরবর্তী খবরসংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে কঠোর সমালোচনা

Leave a Reply