সান্তাহারে বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও শ্রাবণী রায়

মুক্তারুজ্জামান, আদমদিঘী, বগুড়াঃ- বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল ৬ষ্ট শ্রেণির এক ছাত্রী। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার সান্তাহার পৌর এলাকার তিয়রপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ইউএনও ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সান্তাহার পৌর এলাকার ওই গ্রামের ৬ষ্ট শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রীর সঙ্গে একই উপজেলার ডুমুরিগ্রামের ১৯ বছর বয়সী এক ছেলের বিয়ে ঠিক হয়। সে অনুযায়ী শুক্রবার বিয়ের দিন ধার্য হয়। কনের বাড়িতে দুপুরের আগেই উপস্থিত হয় বর পক্ষ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) শ্রাবণী রায় মুঠোফোনে জানান, বর-কনের বাল্য বিয়ের প্রস্তুতি সম্পন্ন। এমন খবরে উপজেলার তিয়রপাড়া গ্রামে কনের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে সেখানেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে উভয় পক্ষের অভিভাবকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা ও প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবে না মর্মে মুচলেকা আদায় করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সান্তাহার পৌর মেয়র আলহাজ তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু ও পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আরিফুল ইসলামসহ স্থানিয় গণ্যমান্য বেক্তিবর্গ।

পূর্ববর্তী খবর‘ফতোয়া’ ও হুমকির ফল: ইয়াজিদ বাহিনীতে ১৩ হাজার কুফাবাসীর যোগদান
পরবর্তী খবরতালেবানের আয় বছরে ১৬০ কোটি ডলার, এত অর্থ কোথা থেকে আসে?

Leave a Reply