সাব্বিরকে ৪ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি

কদিন পরপরই সংযুক্ত আরব আমিরাতের খেলোয়াড়দের নিষিদ্ধের খবর শোনা যায়। বিশেষ করে ম্যাচ পাতানো বা স্পট ফিক্সিং কাণ্ডে জড়িয়ে নিষিদ্ধ হন এসব ক্রিকেটাররা। সেই তালিকায় যুক্ত হবেন দেশটির উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান গোলাম সাব্বির।

এক-দুই বছর নয়, সাব্বিরকে আগামী চার বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সংস্থা (আইসিসি)। আইসিসির দেয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সাব্বির ছয়বার নিয়ম ভঙ্গ করেছেন। যে কারণে এত বড় শাস্তি পেতে হয়েছে তাকে।

নিজের অপরাধ স্বীকার করে আইসিসির দেয়া শাস্তি মেনেও নিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সী এই উইকেট রক্ষক-ব্যাটসম্যান। এই শাস্তির মেয়াদ আগামী ২০২৫ সালের ২০ আগস্ট পর্যন্ত। তাই এই সমটায় ক্রিকেট আর খেলতে পারবেন না সাব্বির।

২.৪.৪ অনুচ্ছেদের আইন দুইবার ভঙ্গ করেছেন সাব্বির। প্রথমত ২০১৯ সালের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পান নেপালের বিপক্ষে ম্যাচে। এর পর ওই বছরের এপ্রিলে প্রস্তাব পান জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। দুইবার প্রস্তাব পেলেও আইসিসিকে জানাননি তিনি।

২.৪.৫ অনুচ্ছেদের আইনও ভেঙেছেন দুইবার। ২.৪.৬ এবং ২.৪.৭ এর ধারাও ভঙ্গ করেছেন একবার করে। আইসিসির এই তিনটি আইন নিয়ে বলেছে, আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটকে সহায়তা না করে উল্টো তদন্তের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মুছে ফেলেন সাব্বির।

এ নিয়ে আইসিসির ইন্টেগ্রিটি ইউনিটের মহা ব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাতের হয়ে ৪০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা গোলাম সাব্বিরের কাছ থেকে আরও দায়িত্ববোধের আশা করা হয়েছিল। এছাড়া তিনি সবশেষ তিনটি এন্টি করাপশন সভায়ও উপস্থিত ছিলেন।’

উল্লেখ্য, নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হতে হতে সাব্বিরের বয়স হয়ে যাবে ৩৯ বছর। এরপর তিনি আবার খেলায় ফিরতে পারবেন কী না সেটাই দেখার বিষয়!

পূর্ববর্তী খবরশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর কোনদিন কোন শ্রেণির ক্লাস
পরবর্তী খবরআফগানিস্তানের পাঞ্জশিরে এখনও সংঘর্ষ চলছে বলে দাবি প্রতিরোধ ফ্রন্টের

Leave a Reply