সালথায় দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

আকাশ সাহাঃ সালথা (ফরিদপুর)প্রতিনিধি:- ফরিদপুরের সালথায় মোঃ জুনায়েদ ফকির (৭) দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে রহস্যজনক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। জুনায়েদ কাউলিকান্দা কুরবান ফকিরের ছোট ছেলে।

জুনায়েদ ফকির স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেনের ২য় শ্রেণির ছাত্র। তার বাবা কুরবান ফকির প্রায় ৭ বছর যাবৎ মালয়েশিয়ায় জীবিকার তাগিয়ে রয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, আগামীকাল স্কুলে পরীক্ষা তাই সকালে জুনায়েদ ফকির-কে লেখা পড়া করতে বলেন মা। সকাল ১০টার দিকে লেখাপড়া শেষ হলে জুনায়েদের মা তাকে একটু খেলা-ধোলা করতে যেতে বলে।

জুনায়েদের বড় ভাই ইয়ার মাহমুদ বলেন, আমি ঘরে ঢুকে দেখি জুনায়েদ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলছে। আমি চিৎকার দিলে আমার মা আসে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাশ নিচে নামাই।

জুনায়েদের দাদি তছিরন বেগম জানিয়েছে, জুনায়েদ বদ মেজাজি ছিল। সে মাঝে মধ্যেই একা একা চৌকির নিচে অথবা ঘরের চাঙ্গে আত্মগোপনে যেত, আবার বেরিয়ে আসতো।

জুনায়েদের ফুফু নিলুফা বেগম জানান, প্রায় ১ বছর আগে জুনায়েদ নিজের খৎনা দেওয়ার জন্য পরিবারকে প্রচুর চাপ দেয় এবং নিজেই ছুরি দিয়ে খৎনা করতে যায়। সে পরিবারকে বলে ১টা গরু জবাই দিতে হবে।

মর্মান্তিক আত্মহত্যার খবর পেয়ে ছুটে যান সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ওয়াদুদ মাতুব্বর। গট্টি ইউনিয়ন পারিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লাভলু

এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি।

সালথা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসিকুজ্জামান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পূর্ববর্তী খবরপারমাণবিক বোমার তেজস্ক্রিয়তার ন্যায় পরকীয়া!
পরবর্তী খবরঈশ্বরদীতে সড়ক দূর্ঘটনায় শিক্ষকের মৃত্য

Leave a Reply