সৌদিকে অর্থ ফেরত দিল পাকিস্তান; ঝুঁকেছে চীনের দিকে

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং (ছবি:- পার্সটুডে)

সৌদি আরবকে পাকিস্তান ঋণের ১০০ কোটি ডলার ফেরত দিয়েছে। রিয়াদের কাছ থেকে ইসলামাবাদ ৩৩০ কোটি ডলার ঋণ নিয়েছিল; তার মধ্যে দ্বিতীয় ধাপে ১০০ কোটি ডলার ফেরত দিল। এর আগে গত জুলাই মাসে দেশটি প্রথম ধাপে সৌদি আরবকে আরো ১০০ কোটি ডলার ফেরত দেয়।

সৌদি আরবকে বাকি অর্থ পরিশোধ করার জন্য চীনের সহযোগিতা চেয়েছে ইসলামাবাদ। চীন থেকে বাণিজ্যিক ঋণ নিতে চায় পাকিস্তান। চীন যদি পাকিস্তানকে এ ধরনের ঋণ দেয় তাহলে সেই অর্থ দিয়ে সৌদি আরবের বাকি ঋণ পরিশোধ করবে ইসলামাবাদ। আগামী মাসের মধ্যে পাকিস্তানকে সৌদি আরবের এ অর্থ পরিশোধ করতে হবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চীন হচ্ছে পাকিস্তানের অর্থ সহায়তাকারী সবচেয়ে বড় মিত্র দেশ।

অন্যদিকে, সৌদি আরবের সঙ্গে পাকিস্তানের ঐতিহাসিকভাবে দীর্ঘদিনের সামরিক, অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিল এবং রিয়াদ কখনো পাকিস্তানকে ঋণের অর্থ ফেরত দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে নি। কিন্তু চলতি বছরের প্রথম দিকে সৌদি আরব তার নীতি পরিবর্তন করে এবং ঋণের ৩৩০ কোটি ডলার ফেরত দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের মুসলমানদের ওপর দিল্লির নীপিড়নের বিরুদ্ধে সৌদি আরব নিন্দা না করায় পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি রিয়াদের সমালোচনা করেছিলেন। এরপরই সৌদি আরব পাকিস্তানের প্রতি রুষ্ট হয়। পরিস্থিতি শান্ত করতে পাকিস্তান তার সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াকে সৌদি সফরে পাঠায় কিন্তু সে প্রচেষ্টা সফল হয় নি।

সূত্র:- পার্সটুডে

পূর্ববর্তী খবরজয়পুরহাটে বাস-ট্রেন সংঘর্ষে বাসের ১১ যাত্রী নিহত !
পরবর্তী খবরএবার তুর্কি কূটনীতিককে আটক করল গ্রিস; উত্তেজনা বৃদ্ধি

Leave a Reply