৩০ সেপ্টেম্বর উপনির্বাচনে রেকর্ড ভোটে জিতবেন মমতা, বললেন পার্থ

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুর কেন্দ্রে বিধানসভার উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। একইসঙ্গে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে নির্বাচন হবে। তিনটি কেন্দ্রেই ফল ঘোষণা হবে ৩ অক্টোবর। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আজ (শনিবার) ওই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘রাজ্যে পাঁচটি আসনে উপনির্বাচন হওয়ার কথা। কিন্তু তারমধ্যে একমাত্র ভবানীপুরেই কেন ভোটগ্রহণ হবে? নির্বাচন কমিশন কোনও ভাবে প্রভাবিত নয় তো!’

রাজ্যে ভবানীপুর কেন্দ্রের নির্বাচন নিয়েই মানুষের আগ্রহ বেশি। কারণ, সেখানে তৃণমূলের প্রার্থী হচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় আজ বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুর কেন্দ্রে রেকর্ড মার্জিনে জিতবেন। সেজন্য আমরা সবাই মিলে কাজ করব।’

গত বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দীর্ঘদিনের কেন্দ্র ভবানীপুরে প্রার্থী না হয়ে নন্দীগ্রামে প্রার্থী হন। এবং সেখানে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারীর কাছে পরাজিত হন। যদিও তৃণমূল বিধায়করা মমতাকে পরিষদীয় দলের নেত্রী ঘোষণা করায় তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন। ৫ মে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মমতা। সাংবিধানিক নিয়ম মেনে ৬ মাসের মধ্যে অর্থাৎ ৫ নভেম্বরের মধ্যে তাঁকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়ে আসতে হবে।

গত বিধানসভা নির্বাচনে ভবানীপুরে প্রার্থী হয়েছিলেন কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তিনি গত ২১ মে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী, কোনও কেন্দ্রে বিধায়কের মৃত্যু হলে বা ইস্তফা দিলে ছয় মাসের মধ্যে উপনির্বাচন হওয়া উচিত। গত বিধানসভা নির্বাচনের ভোট প্রক্রিয়া চলাকালীন মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে প্রার্থী মারা গিয়েছিলেন। ওই দুই কেন্দ্রে এবার নির্বাচন হবে।

এছাড়া উপনির্বাচন হওয়ার কথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার খড়দহ, দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার গোসবায়। সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগেই করোনা সংক্রমণে মারা যান খড়দহের তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিংহ। সেখানে জিতেছিল তৃণমূল। বিধায়ক পদে শপথ নেওয়ার পরে মারা যান গোসাবার তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর।

এ ছাড়া বিজেপির দু’জন এমপি বিধানসভা নির্বাচনে জিতেও এমপি পদে থেকে যাবেন বলে দিনহাটা ও শান্তিপুরের বিধায়ক পদ ছেড়েছেন বিজেপি’র এমপি নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার। কিন্তু ওই চার বিধানসভা কেন্দ্রে এখনও উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা করেনি নির্বাচন কমিশন।#

পূর্ববর্তী খবরআওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে; মির্জা ফখরুল
পরবর্তী খবরচারঘাটে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষে সফল মেহেদী

Leave a Reply