৪০ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ হতে পারে ডিসেম্বরেই!

ছবি :- সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:- অপেক্ষার পালা শেষ হচ্ছে ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফলপ্রত্যাশীদের। এই মাসেই এই বিসিএসের ফল প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)। পিএসসি-সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

পিএসসির একাধিক সূত্র জানায়, করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে একটি বড় সময় পিএসসির কার্যক্রম শিথিল ছিল। এ জন্য এই ফলাফল প্রকাশে বিলম্ব হচ্ছে। তবে চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহের মধ্যে পিএসসি জরুরি সভা করবে। বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) প্রথম আলো পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে আরও জানা যায়, সেখানেই ৪০তম বিসিএসের ফলাফলের বিষয়টি চূড়ান্ত করে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। সভাতেই ঠিক করা হবে মৌখিক পরীক্ষা কবে অনুষ্ঠিত হবে। এই ফলাফলের জন্য অনেক দিন ধরেই অপেক্ষা করছেন প্রায় ২০ হাজার প্রার্থী।

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, একজন পরীক্ষক খাতা মূল্যায়ন করার পর তার মূল্যায়ন সঠিক হয়েছে কি না, সেটি যাচাইয়ের জন্য ওই খাতা দ্বিতীয় ধাপে একজন নিরীক্ষক পুনরায় পরীক্ষা করেন। পুনর্নিরীক্ষণ করার সময় নিরীক্ষক দেখেন, যেখানে যেমন নম্বর দেওয়ার কথা ছিল, তা দেওয়া হয়েছে কি না আবার নম্বর যোগ করতে কোথাও ভুল হয়েছে কি না। এই প্রক্রিয়া শেষ হলে তবেই ফলাফল চূড়ান্ত করা হয়।

পরীক্ষার্থীদের মেধা যথাযথভাবে মূল্যায়ন করতে ৩৮তম বিসিএস থেকে এভাবেই খাতা দেখে আসছে পিএসসি।

গত বছরের মে মাসে ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এই পরীক্ষায় আবেদন করেছিলেন ৪ লাখ ১২ হাজার ৫৩২ জন প্রার্থী। এর মধ্যে পরীক্ষা দিয়েছেন ৩ লাখ ২৭ হাজার পরীক্ষার্থী। তাঁদের মধ্যে প্রিলিমিনারিতে উত্তীর্ণ হন ২০ হাজার ২৭৭ জন। ২০১৮ সালের আগস্টে ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।

৪০তম বিসিএসে মোট ১ হাজার ৯০৩ জন ক্যাডার নেওয়া হবে। এতে প্রশাসন ক্যাডারে ২০০, পুলিশে ৭২, পররাষ্ট্রে ২৫, করে ২৪, শুল্ক আবগারিতে ৩২ ও শিক্ষা ক্যাডারে প্রায় ৮০০ জন নিয়োগ দেওয়া হবে। মোট ১ হাজার ৯০৩ জন ক্যাডার নিয়োগ দেওয়া হবে। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

এরই মধ্যে দুই বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। এর মধ্যে ৪২তম বিসিএসটি বিশেষ এবং ৪৩তমটি সাধারণ। ৪২তম বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে চিকিৎসক নেওয়া হবে ২ হাজার। আর ৪৩তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। সম্প্রতি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় মোট ১ হাজার ৮১৪ পদের চাহিদা পাঠায়। এতে শিক্ষায় নেওয়া হবে সবচেয়ে বেশি।

এখানে পদসংখ্যা ৮৪৩। এ ছাড়া প্রশাসনে ৩০০, পুলিশে ১০০, পররাষ্ট্রে ২৫, অডিটে ৩৫, ট্যাক্সে ১৯, কাস্টমসে ১৪, সমবায়ে ১৯, ডেন্টাল সার্জন ৭৫ জন এবং অন্যান্য ক্যাডারে ৩৮৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

৪২তম বিশেষ বিসিএসে ২ হাজার চিকিৎসকের নিয়োগপ্রক্রিয়া চূড়ান্ত করেছে পিএসসি। পিএসসি সূত্র জানিয়েছে, বিশেষ বিসিএসে নিয়োগ দিতে হলে বিধিমালা সংশোধন করতে হয়। তারা সেই প্রক্রিয়া শেষ করেছে।

৪১তম বিসিএসে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার অপেক্ষায় আছেন সাড়ে ৪ লাখের বেশি প্রার্থী। গত বছরের ২৭ নভেম্বর ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।

এতে বিভিন্ন পদে ২ হাজার ১৩৫ কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে। এ ছাড়া ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা নিয়েছে পিএসসি। এখন মৌখিক পরীক্ষার দিন ঘোষণার অপেক্ষায় আছেন প্রার্থীরা।

সূত্র: দৈনিক শিক্ষা।

পূর্ববর্তী খবরপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে পাকিস্তানের হাইকমিশনারের সাক্ষাত
পরবর্তী খবরচসিক এর কোটি টাকার মশক নিধন অভিযানের তেমন সফলতা নেই।

Leave a Reply