VPN কি? Vpn ব্যবহারের সুবিধা-অসুবিধা, Vpn ব্যবহারের নিয়ম, ০৩টি সেরা ফ্রি VPN?

VPN কি?

VPN এর পূর্ণ রূপ হলঃ Virtual Private Network।  VPN ইন্টারনেটের একটি ভার্চুয়াল “টানেল” যার মাধ্যমে ডাটা কম্পিউটার থেকে আদান প্রদান করতে পারে। ভিপিএন বলতে একটি কাল্পনিক প্রাইভেট নেটওয়ার্কের কথা বলা হচ্ছে।

VPN কত প্রকার?

ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য অনেক ধরনের ভিপিএন (VPN) রয়েছে। প্রত্যেকটি ভিপিএন কম বেশি ব্যবহারকারীদের সিকিউরিটি সুযোগ দিয়ে থাকে ভিপিএন (VPN) গুলোকে ব্যবহারের উপযোগী করার জন্য অনেকগুলো ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়। আপনি যদি সব ক্যাটাগরির সম্পর্কে জানেন তাহলে প্রয়োজন অনুযায়ী ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করতে অনেক সুবিধা হবে।  নিচে ভিপিএন এর pokpok

1. পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট টানেলিং প্রোটোকল (PPTP):

পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট টানেলিং প্রোটোকল (PPTP) একটি নেটওয়ার্ক প্রোটোকল যা টিসিপি/আইপি-ভিত্তিক ডেটা নেটওয়ার্ক জুড়ে একটি ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) তৈরি করে একটি দূরবর্তী ক্লায়েন্ট থেকে একটি ব্যক্তিগত এন্টারপ্রাইজ সার্ভারে ডেটা নিরাপদ স্থানান্তর করতে সক্ষম করে।

2. সিকিউর সকেট টানেলিং প্রোটোকল (SSTP):

সিকিউর সকেট টানেলিং প্রোটোকল (SSTP) হল ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) টানেলের একটি ফর্ম যা একটি এসএসএল/টিএলএস চ্যানেলের মাধ্যমে পিপিপি ট্রাফিক পরিবহনের ব্যবস্থা প্রদান করে। … প্রোটোকলটি পয়েন্ট-টু-সাইট ভার্চুয়াল নেটওয়ার্কের জন্য উইন্ডোজ অ্যাজুর দ্বারা ব্যবহৃত হয়।

3. লেয়ার ২ টানেলিং প্রোটোকল (L2TP):

কম্পিউটার নেটওয়ার্কিংয়ে, লেয়ার ২ টানেলিং প্রোটোকল (L2TP) হল একটি টানেলিং প্রোটোকল যা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) বা আইএসপি দ্বারা পরিষেবা সরবরাহের অংশ হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

4. সিকিউর সকেট লেয়ার (SSL) and ট্রান্সপোর্ট লেয়ার সিকিউরিটি (TLS):

ট্রান্সপোর্ট লেয়ার সিকিউরিটি, এখন অবচ্যুত সিকিউর সকেট লেয়ারের উত্তরাধিকারী, একটি ক্রিপ্টোগ্রাফিক প্রোটোকল যা একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্কে যোগাযোগের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।

5. রিমোট অ্যাক্সেস VPN:

রিমোট অ্যাক্সেস ভিপিএন মানে আপনার  কর্মচারীরা আপনার অফিস নেটওয়ার্কে যে কোন জায়গা থেকে লগ ইন করতে পারেন – বাসা, ভ্রমণ, ট্রানজিট – যার ইন্টারনেট অ্যাক্সেস আছে।

6. সাইট-টু-সাইট VPN:

একটি সাইট-টু-সাইট ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (VPN) হল দুই বা ততোধিক নেটওয়ার্কের মধ্যে একটি সংযোগ, যেমন একটি কর্পোরেট নেটওয়ার্ক এবং একটি শাখা অফিস নেটওয়ার্ক।

7. ইন্টারনেট প্রোটোকল সিকিউরিটি or IPSec:

কম্পিউটিংয়ে, ইন্টারনেট প্রোটোকল সিকিউরিটি (আইপিএসসি) একটি সুরক্ষিত নেটওয়ার্ক প্রোটোকল স্যুট যা একটি ইন্টারনেট প্রোটোকল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে দুটি কম্পিউটারের মধ্যে নিরাপদ এনক্রিপ্ট করা যোগাযোগ প্রদানের জন্য ডেটার প্যাকেটগুলিকে প্রমাণ করে এবং এনক্রিপ্ট করে। এটি ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) ব্যবহার করা হয়।

8. সিকিউর শেল (SSH).

সিকিউর শেল হল একটি ক্রিপ্টোগ্রাফিক নেটওয়ার্ক প্রোটোকল যা একটি অনিরাপদ নেটওয়ার্কের মাধ্যমে নিরাপদে নেটওয়ার্ক সেবা পরিচালনা করে। সাধারণ অ্যাপ্লিকেশনগুলির মধ্যে রয়েছে রিমোট কমান্ড-লাইন, লগইন এবং রিমোট কমান্ড এক্সিকিউশন, কিন্তু যেকোনো নেটওয়ার্ক পরিষেবা SSH দিয়ে সুরক্ষিত করা যায়।

VPN কি, কোন ভিপিএন ভালো, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম, মোবাইল ভিপিএন, ভিপিএন এর কাজ কি, ফ্রি ভিপিএন এন্ড্রয়েড এই সব বিষয় নিয়ে আজকের পোস্ট।

VPN কিভাবে কাজ করে?

একটি ভিপিএন তার হোস্ট দ্বারা পরিচালিত বিশেষভাবে কনফিগার করা রিমোট সার্ভার এর মাধ্যামে নেটওয়ার্ক কে পুনঃনির্দেশিত করে তার ব্যবহারকারীর আইপি এড্রেসকে হাইড করে। এর অর্থ হলো আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করে অনলাইনে যুক্ত থাকেন তাহলে আপনার ডেটার উৎস হয়ে উঠবে ভিপিএন সার্ভার। এর ফলে আপনার ইন্টারনেট সেবাদান কারী প্রতিষ্ঠান (আইএসপি) বা আপনার সার্ভার ( মূলত বাংলাদেশীদের জন্য আমরা ধরতে পারি এটি একটি সার্ভার) বা তৃতীয় কোনো পক্ষ আপনি কোন ওয়েবসাইট ভিজিট করছেন বা অনলাইন এ কার সাথে যুক্ত হচ্ছেন,, কি ডেটা আদান প্রদান করছেন তা ট্র্যাক করতে পারবে না। এটি মূলত আপনার সার্ভারকে কাজে লাগিয়ে আপনার সকল ডেটাকে gibberish এ পরিণত করে৷ ফলে আপনার সার্ভার বা মনিটর যা আপনার ডেটা সর্বদা পর্যবেক্ষণ করতে সক্ষম বা করতে চায় তাকে অকেজো করে দেয়৷

VPN কি, কোন ভিপিএন ভালো, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম, মোবাইল ভিপিএন, ভিপিএন এর কাজ কি, ফ্রি ভিপিএন এন্ড্রয়েড এই সব বিষয় নিয়ে আজকের পোস্ট।

VPN এর কাজ কি?

VPN বা Virtual Private Network আপনার ব্যবহার করা ইন্টারনেট কানেক্শনে অধিক security এবং privacy যোগ কোরে, যেকোনো Public Network, Private Network, Open Wifi Hotspot Connection কে সুরক্ষিত করে দেয়।

কেন VPN ব্যবহার করা উচিৎ?

আপনি যখন ইন্টারনেটে সংযোগ করেন তখন আপনার আইএসপি (ইন্টারনেট সার্ভিস প্রবাইডার) সাধারণত আপনার সংযোগ স্থাপন করে। এটি আপনাকে একটি আইপি ঠিকানার মাধ্যমে আপনাকে ট্র্যাক করে। আপনার নেটওয়ার্ক ট্র্যাফিক আপনার আইএসপির সার্ভারগুলির মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে, যা আপনি অনলাইনে যা কিছু করেন তাতে লগ ইন এবং প্রদর্শন করতে পারে। আপনার আইএসপি বিশ্বাসযোগ্য মনে হতে পারে তবে এটি বিজ্ঞাপনদাতাদের, পুলিশ বা সরকার বা অন্যান্য তৃতীয় পক্ষের সাথে আপনার ব্রাউজিংয়ের ইতিহাস ভাগ করে নিতে পারে। আইএসপিগুলি সাইবার অপরাধীদের দ্বারা আক্রমণের শিকারও হতে পারে: সেগুলি হ্যাক করা থাকলে আপনার ব্যক্তিগত এবং ব্যক্তিগত ডেটা আপোস করা যেতে পারে। তাই ভিপিএন ব্যবহার করা উচিৎ। কারণ ভিপিএন ব্যবহার করলে আইএসপি কে তা অকেজো করে দেই।

তাছাড়াও যখন আপনি কোনো পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করেন, তখন কোনো সাইটে লগ ইন বা যেকোনো তথ্য আাদান প্রদান করার সময় অথবা টাকা আদান প্রদানের সময় আপনার একাউন্ট নাম্বার পিন সব কিছু ওই ওয়াইফাই ব্যবহারের ফলে যে কেউ সহজেই ট্র্যাক করতে পারে। তাই তখন ভিপিএন ব্যবহার করা জরুরী৷

VPN ব্যবহার করা কি নিরাপদ?

একটি নির্ভরযোগ্য ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) ব্যবহার করা ইন্টারনেট ব্রাউজ করার একটি নিরাপদ উপায় হতে পারে। ভিপিএন নিরাপত্তা ক্রমবর্ধমানভাবে সরকারি সংস্থা এবং বড় কর্পোরেশন দ্বারা ডেটা ছিনতাই করা থেকে বা ব্লক করা ওয়েবসাইটগুলিতে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। যাইহোক, বিনামূল্যে ভিপিএন টুল ব্যবহার করা অনিরাপদ হতে পারে।

VPN কি, কোন ভিপিএন ভালো, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম, মোবাইল ভিপিএন, ভিপিএন এর কাজ কি, ফ্রি ভিপিএন এন্ড্রয়েড এই সব বিষয় নিয়ে আজকের পোস্ট।

VPN ব্যবহারের সুবিধা :-

  • ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করলে নিরাপদে তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবেন।
  • ভভিপিএন (VPN) ব্যবহার করলে অবস্থান কেউ ট্রাক করতে পারবেনা।
  • ভিপিএন (VPN)ব্যবহার করলে তথ্য চুরি হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।
  • ভিপিএন (VPN) দিয়ে ব্লক করা ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে পারবেন। মনে করুন, আমাদের দেশে ফেসবুক বন্ধ করে দিলে ভিপিএন ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রবেশ করতে পারবেন।

VPN কি, কোন ভিপিএন ভালো, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম, মোবাইল ভিপিএন, ভিপিএন এর কাজ কি, ফ্রি ভিপিএন এন্ড্রয়েড এই সব বিষয় নিয়ে আজকের পোস্ট।

VPN ব্যবহারের অসুবিধা :-

সব কিছুরই সুবিধা অসুবিধা রয়েছে তার মধ্যে ভিপিএন (VPN) ব্যবহারের কিছু অসুবিধা হলো।

  • ভিপিএন (VPN) এর সবচেয়ে বড় অসুবিধা হল ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করে টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করা যায় না। টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করার জন্য ইন্টারনেটের উপর নির্ভর করতে হবে।
  • বিভিন্ন ভিপিএন অ্যাপ আপনার ডিভাইসের বিভিন্ন পার্মিশন নিয়ে বিভিন্ন তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে।
  • ভিপিএন ব্যবহারের ফলে নিজের অবস্থান বার বার অন্য দেশে চলে যায় বলে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটে ভিপিএন কানেক্টেড থাকা অবস্থায় ভিজিট করলে একাউন্টের সমস্যা হতে পারে।
  • ভিপিএন কানেক্ট করে এডসেন্স সংশ্লিষ্ট সেবা ব্যবহার করলে একাউন্টের সমস্যা হতে পারে।
  • আপনি ইন্টারনেটে কি করছেন না করছেন সব তথ্যই ভিপিএন কোম্পানি ট্র্যাক করে নিতে পারে।

VPN ব্যবহারের নিয়ম কি?

মোবাইল অথবা কম্পিউটার যেকোনো জায়গাতে ভিপিএন এর ব্যাবহার করতে পারবেন। অনলাইনে অনেকগুলো সফটওয়্যার আছে যেগুলো দিয়ে ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করতে পারবেন। ভিপিএন (VPN) মূলত মোবাইল, কম্পিউটার ল্যাপটপ বা মেশিনে সেটআপ করে ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করতে পারবেন। ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করতে চাইলে কিছু ভিপিএন (VPN) টাকা ছাড়া অর্থাৎ ফ্রি, আবার কিছু ভিপিএন (VPN) টাকা দিয়ে অর্থাৎ পেইট পদ্ধতিতে ভিপিএন ব্যবহার করতে হয়।

1. Mobile এ যে ভাবে VPN ব্যবহার করবেনঃ

মোবাইল VPN ব্যবহার করতে গেলে, প্লেস্টোর (Playstore) থেকে যেকোনো একটি VPN অ্যাপ ডাউনলোড করেন। এরপর ওই অ্যাপটিকে এক্টিভ (active) করুন। তারপর যেকোনো website ভিজিট করলে টা VPN এর মাধ্যমেই ভিজিট হবে।এবং VPN ব্যবহার করতে না চাইলে অ্যাপটি খুলে ডিসকানেক্ট করতে পারেন। Play store এ গিয়ে শুধু সার্চ করুন VPN লিখে। প্রচুর VPN আছে যেগুলো সহজেই ব্যাবহার করতে পারবেন। এগুলি মধ্যে, যেকোনো একটি অ্যাপ কে ইনস্টল করে, কানেক্ট করার পরে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেকোনো ওয়েবসাইটে ভিসিট করলে তা VPN এর মাধ্যমে ব্যবহার করা হবে।

মোবাইলের জন্য ০৩টি সেরা ফ্রি VPN ভিপিএন App ( Best Free VPN App 2021 For Mobile ):

  1. ZenMate VPN

    ZenMate VPN: যেনমেট হল একটি লাইট ওয়েট ব্রাউজার। এর কোন সাইন আপ নেই এবং শুধুমাত্র আপনি আপনার ইমেইল ব্যবহার করে সুরক্ষিত এবং ব্যক্তিগত ব্রাউজিং এর সেবা পাবেন। সেরা ফ্রি ভিপিএন এটি। ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম জানতে এই ভিডিওটি দেখুন

  2. Avira Phantom VPN

    Avira Phantom VPN: সবচেয়ে ভালো VPN এর তালিকাতে এটিও আছে। বিনামূল্যে দেওয়া এই ভিপিএন আপনাকে প্রতি মাসে ৫০০ এম্বি ব্রাউজিং ডেটা দেয়। যেটা পিসি ও স্মার্টফোন দুটোতেই ব্যবহার যোগ্য। শুধু তাই নয় এর আছে দূর্দান্ত কিছু বৈশিষ্ট্য যা নিম্নরূপঃ

    • ট্রাফিক এঙ্ক্রিপশন
    • ব্যক্তিগত সার্ফিং
    • জিওরেস্ট্রিক্টেড সাইট এক্সেস
    • ডিএনেস লিক প্রিভেনশন
    • স্বয়ংক্রিয় ভাবে ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত
  3. Super VPN মোবাইলের সেরা VPN

    Super VPN অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের অন্যতম সেরা ভিপিন অ্যাপ হলো সুপার ভিপিএন। এই প্যারাগ্রাফের শুরুতেই এই ভিপিএন এর ডাউনলোড লিংক দেওয়া আছে। ইন্সটল করে কানেক্ট করে নিন ফ্রিতে আর ব্যবহার করুন সকল ব্লকড ওয়েবসাইট নিশ্চিন্তে। ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম জানতে এই ভিডিওটি দেখুন

 

2. কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে যে ভাবে VPN ব্যবহার করবেনঃ

গুগল ক্রমে (Chrome) এ VPN Extension লিখে সার্চ করুন। এবং এখান থেকে অনেক VPN পাওয়া যায় যা add করে VPN ব্যবহার করতে পারবেন।

এই পোস্ট থেকে আমরা VPN এর যে বিষয় গুলো সম্পর্কে জানলাম:  

  • VPN কি?  ( What is VPN? )
  • VPN কত প্রকার? ( Types of VPN? )
  • VPN কিভাবে কাজ করে?
  • VPN এর কাজ কি?
  • কেন VPN ব্যবহার করা উচিৎ? ( Why VPN should be used? )
  • VPN ব্যবহার করা কি নিরাপদ? ( Is it safe to use VPN?)
  • VPN ব্যবহারের সুবিধা।
  • VPN ব্যবহারের অসুবিধা
  • VPN ব্যবহারের নিয়ম।
  • Mobile VPN ব্যবহার করার উপায়।
  • মোবাইলের জন্য ০৩টি সেরা ফ্রি VPN ভিপিএন App এর নাম।
  • কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে VPN ব্যবহার করার নিয়ম।

সর্বোপরি সচেতন হয়ে নেট ব্রাউজ করুন। হ্যাকারদের থেকে সাবধান থাকুন আর ভিপিএন ব্যবহার করে নিজের সিকিউরিটি নিশ্চিত করুন। পোস্টটি ভাল লাগলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন। আরও প্রযুক্তি বিষয়ক খবর দেখতে ক্লিক করন। 

 

  • ট্যাগ
  • VPN
পূর্ববর্তী খবরতৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনের তালিকা
পরবর্তী খবররাজশাহীর ১৩ ইউপিতে ভোট আগামী ২৮ নভেম্বর

Leave a Reply